Space For Advertisement

রাবি ছাত্রলীগের বাস ভাংচুর, সাংবাদিককে পিটিয়ে জখম

রাবি ছাত্রলীগের বাস ভাংচুর, সাংবাদিককে পিটিয়ে জখম

ঢাকা, সোমবার, ১০ জুলাই ২০১৭ (রাবি প্রতিনিধি) : পেশাগত দায়িত্ব পালনের সময় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) এক সাংবাদিককে পিটিয়ে গুরুতর জখম করেছে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের কয়েক নেতাকর্মী। সোমবার বেলা ১১টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকে এই ঘটনা ঘটে। আহত আরাফাত রহমান ডেইলি স্টারের রাবি প্রতিনিধি। তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তার চোখে মারাত্মক জখম হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, সোমবার সকালে চট্টগ্রাম থেকে রাজশাহীগামী দেশ ট্রাভেলসের একটি বাসে ক্যাম্পাসে আসছিলেন বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক সাইফুল ইসলাম বিজয়। কুমিল্লায় ভাড়া নিয়ে বাসের সুপারভাইজারের সঙ্গে তার কথা কাটাকাটি হয়। পরে বাসে সিগারেট খাওয়া নিয়ে আবারও সুপারভাইজারের সঙ্গে বিজয়ের কথা কাটাকাটি হয়। বিজয় মোবাইলে ঘটনা জানায় বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের। খবর পেয়ে সোমবার সকালে বিশ্ববিদ্যালয়েল মেইন গেটে জড়ো হন ছাত্রলীগের ১৫/১৬ নেতাকর্মী। তারা বাসের সেখানে আসলে ভাংচুর শুরু করেন ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা। এসময় সাংবাদিক আরাফাত বাস ভাংচুরের ছবি তুলতে গেলে তাকে বেধড়ক মারধর করেন ৭/৮ ছাত্রলীগের নেতাকর্মী।  এসময় মেইন গেটে দায়িত্বরত পুলিশ আরাফাতকে উদ্ধার করে। আহত অবস্থায় তাকে প্রথমে বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিকেল সেন্টারে ভর্তি করা হয়। পরে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। তিনি এখন হাসাপাতালের ৮ নম্বর ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন আছেন।
 
রাবি ছাত্রলীগের সহসভাপতি আহমেদ সজীব বলেন, আমরা মারধর বা ভাংচুরের ঘটনায় জড়িত ছিলাম না। সাধারণ শিক্ষার্থীরা এই ঘটনা ঘটিয়েছে। রাবি ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল আহমেদ রুনু বলেন, কয়েকজন সাধারণ শিক্ষার্থীর সঙ্গে বাসের সুপারভাইজারের ঝামেলা হয়েছিল বলে শুনেছি। সাংবাদিককে মারধরের বিষয়ে তিনি বলেন, আামি বিষয়টা শুনেছি, তবে তাকে মারধরে আমাদের কেউ জড়িত ছিল না। কেউ জড়িত থাকলে তার বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেয়া হবে। এ ব্যাপারে নগরীর মতিহার থানার ওসি হুমায়ূন কবির বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকজন শিক্ষার্থী বাসটিতে হালকা ভাংচুর করেছে। এখন পরিস্থিতি স্বাভাবিক। এ সময় একজনকে মারধর করতে দেখলে পুলিশ সদস্যরা তাকে উদ্ধার করেছে। তারা বিশ্ববিদ্যালয়েরই ছাত্র। আমরা এ বিষয়ে বিস্তারিত এখনো জানতে পারি নি। 


সংশ্লিষ্ট আরও খবর

সর্বশেষ খবর

Today's Visitor