Space For Advertisement

অপরূপা শাড়ীর অন্তরালে চলছে আরিফের অর্থপাচার বাণিজ্য

অপরূপা শাড়ীর অন্তরালে চলছে আরিফের অর্থপাচার বাণিজ্য

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০১৭ (তারেক হোসেন বাপ্পি ও মালিহা চৌধুরী) : রাজধানীর ব্যস্ততম এলাকার নিউমার্কেট থানাধীন ধানমন্ডি হকার্স মার্কেটে অপরূপা শাড়ী নামে রয়েছে একটি প্রতিষ্ঠান। অভিযোগ উঠেছে, অপরূপা শাড়ী প্রতিষ্ঠানটির  মালিক মোঃ আরিফুর রহমান আরিফ আইনের চোখে ধূলো দিয়ে দীর্ঘদিন যাবৎ চালিয়ে যাচ্ছেন অর্থ পাচারের রমরমা বাণিজ্য। গোপন সূত্রে ঊঠে এসেছে, আরিফের অর্থ পাচারের সময় মুঠোফোনে আলাপকালের গোপন সব কথোপকথন। ছদ্মবেশে প্রতিবেদকের সাথে বাংলাদেশ থেকে ভারতে অর্থ পাচারের দর কষাকষি এবং কীভাবে অর্থ পাচার করা হবে তা আলোচনা করেন অর্থ পাচারকারী আরিফ। এছাড়া একাধিক সূত্রে আরও অভিযোগ পাওায়া যায়, আরিফ তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান অপরূপা শাড়ী হাউজে বসেই লেনদেন করেন হুন্ডি বানিজ্যের এবং এই অবৈধ হুন্ডি বানিজ্য পরিচালনার মূল দায়িত্বে রয়েছেন আরিফের মেয়ের জামাতা মিলু। যিনি এই হুন্ডি বানিজ্যের সাথে একান্তভাবে জড়িত। আরিফ ও তার জামাতা মিলু’র অবৈধ হুন্ডি বানিজ্যের সহযোগীতায় রয়েছে দবির, দোকানের ম্যানেজার ও দোকানের স্টাফ রিপন। তবে মূল হোতা হিসেবে এখন সক্রিয় রয়েছেন জামাতা মিলু। তিনি (মিলু) বঙ্গবাজার, ইসলামপুর, চাঁদনীচক, গাউছিয়া, নিউমার্কেট থেকে পর্যায়ক্রমে অন্যান্য হুন্ডি ব্যবসায়ীদের সাথে সুসম্পর্ক বজায় রেখে এই  ব্যবসা নিয়ন্ত্রন করছেন। এরপর ভারত সীমান্তের ওপাড়ে র?্য়েেছ তার সিন্ডিকেটের  বনিক, জগদীশ ও নাকমলসহ আরো অনেকে। এছাড়াও জানা যায় আরিফের অর্থ পাচার বাণিজ্যের সাথে জড়িত রয়েছে এক বিশাল সিন্ডিকেট। এ সিন্ডিকেটের সহযোগিতায় কাউকে তোয়াক্কা না করে সকারের রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে প্রকাশ্যে চালিয়ে যাচ্ছেন অবৈধ অর্থ পাচার বাণিজ্য। ইতোমধ্যেই বিদেশে অর্থ পাচারের সাথে জড়িত কয়েকটি চক্রের খোঁজ পেয়েছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড। তাদের কাছে বিশেষ প্রমান রয়েছে বলেও জানিয়েছেন এনবিআর চেয়ারম্যান নজিবুর রহমান। এনবিআর-এর এক সংবাদ সম্মেলন-এ করফাঁকিবাজ ও অর্থ পাচারকারীরা এনবিআর এর কর্মকর্তাদের ভয়ভীতি ও হুমকি দিচ্ছেন বলেও অভিযোগ করেন তিনি। এসব অবৈধ হুন্ডি পাচার সম্পর্কে আরিফের সাথে যোগাযোগ করতে একাধিকবার চেষ্টা করেও সম্ভব হয় নি।

 


সংশ্লিষ্ট আরও খবর

সর্বশেষ খবর

Today's Visitor