Space For Advertisement

সিইসির নির্দেশেই হামলা-গায়েবি মামলা-গ্রেপ্তার : রিজভী

সিইসির নির্দেশেই হামলা-গায়েবি মামলা-গ্রেপ্তার : রিজভী

ঢাকা, রোববার, ২৫ নভেম্বর ২০১৮ (স্টাফ রিপোর্টার) :​ সারা দেশে হামলা, মামলা, গায়েবি মামলা, গ্রেপ্তারসহ সব কিছুই প্রধান নির্বাচন কমিশনারের (সিইসি) নির্দেশে হচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। আজ রোববার সকালে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যলয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ মন্তব্য করেন তিনি।

রাজধানী আগারগাঁওয়ের নির্বাচন কমিশন ভবনে গতকাল শনিবার এক সংবাদ সম্মেলনে সিইসি কে এম নুরুল হুদা বলেন, ‘পুলিশ ইসির কথা মতোই চলছে। বিনা কারণে কাউকেই গ্রেপ্তার করছে না। আমাদের কথা পুলিশ মান্য করে। আমরা আইনমতো যতটুকু যেভাবে যাওয়ার দরকার সেভাবে যাচ্ছি।’ সিইসির এ বক্তব্যের সূত্র ধরেই রিজভী আজ এ মন্তব্য করেন।

রিজভী বলেন, “গতকাল সিইসি বলেছেন, ‘পুলিশ ইসির নিদের্শ মতোই কাজ করছে।’ সুতরাং সিইসি স্বীকার করে নিলেন যে সারা দেশে যত হামলা, মামলা, গায়েবি মামলা, গ্রেপ্তারসহ সব কিছু হচ্ছে সিইসির নির্দেশে। সেক্ষেত্রে যশোরের বিএনপি নেতা ও দলের  মনোনয়নপ্রত্যাশী আবু বকর আবুর লাশ বুড়িগঙ্গায় ভেসে ওঠা নিয়েও জনমনে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। তার বক্তব্যে পরিস্কার হলো, তিনি সুষ্ঠু নির্বাচন চান না। যে করেই হোক আওয়ামী লীগকে আবারও ক্ষমতায় বসাতে হবে-এটাই কমিশনের মনোবাসনা।”

‘একতরফা নির্বাচন করতে এবং দেশে একনায়কতান্ত্রিক শাসন প্রতিষ্ঠা করতে’ নুরুল হুদা সিইসি হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন মন্তব্য করে রিজভী বলেন, ‘সাংবিধানিক দায়িত্ব পালন করার জন্য নয়, সিইসির বক্তব্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে আরও বেপরোয়া করে তুলবে।’

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রিজাইডিং কর্মকর্তার অনুমতি ছাড়া ভোটকেন্দ্রের ভেতরে প্রবেশ না করতে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটদের নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার। এ প্রসঙ্গে রিজভী বলেন, ‘নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটরা ভোটকেন্দ্রের ভেতরে যেতে পারবেন না, সাংবাদিকরা ভোটকেন্দ্রে যেতে পারবেন না, পর্যবেক্ষকদের মুর্তির মতো দাঁড়িয়ে থেকে ভোট পর্যবেক্ষণ করতে হবে, তাহলে কি শুধুমাত্র আওয়ামী সন্ত্রাসী বাহিনী আর আওয়ামী চেতনায় সাজানো আইনশৃঙ্খলা বাহিনী মিলে নির্বাচন করবে?’

রিজভী আরও বলেন, ‘ভোট ডাকাতির সুযোগ করে দিতেই যাবতীয় আয়োজন করা হচ্ছে বলে জনগণ বিশ্বাস করে। বর্তমানে যে পরিবেশ বিরাজমান, এ পরিস্থিতিতে কোনো ভোটার ভোটকেন্দ্রে যাবে না। সুতরাং সিইসির বক্তব্যে পরিস্কার হলো, অবাধ-সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের অন্তরায় তিনি নিজেই।’

সংবাদ সম্মেলনে নির্বাচনে সেনাবাহিনী মোতায়েন নিয়েও কথা বলেন রিজভী। তিনি বলেন, ‘নির্বাচনে সেনাবাহিনী পুলিশের কো-অর্ডিনেশনের মধ্যে থাকবে, যা নজিরবিহীন ও দূরভিসন্ধিমূলক। পুলিশের কমান্ডে কী করে সেনাবাহিনী কাজ করবে? সেনাবাহিনীকে আর কত ছোট করা হবে? যে সেনাবাহিনী মুক্তিযুদ্ধে অনন্য অবদানের মধ্য দিয়ে আমাদের জাতীয় স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্বের অতন্দ্র প্রহরীর ভূমিকা পালন করে গর্বিত বাহিনী হিসেবে সকলের নিকট সমাদৃত হয়েছে, সেই বাহিনীকে আর কত নীচু করা হবে? যে সেনাবাহিনী আমাদের জাতীয় দুর্যোগ-দুর্বিপাক মোকাবেলায় মানুষের জীবন ও সম্পদ বাঁচাতে উপদ্রুত এলাকায় দ্রুতগতিতে ছুটে যায়, সেই বাহিনীকে আর কত হেয় করা হবে?’

সংবাদ সম্মেলনে নেতাকর্মীদের গ্রেপ্তার প্রসঙ্গে বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব বলেন, ‘দেশব্যাপী আমাদের নেতাকর্মীদের আটক-গ্রেপ্তার এখনও অব্যহত আছে। এগুলো কি ইসির নির্দেশে হচ্ছে?’ এ সময় বিভিন্ন জেলায় দলের নেতাকর্মীদের গ্রেপ্তার ও বাড়ি-ঘরে চালানো পুলিশি তাণ্ডবের নিন্দা জানান তিনি।


সংশ্লিষ্ট আরও খবর

সর্বশেষ খবর

Today's Visitor