Space For Advertisement

বেতনের টাকা না দেওয়ায় স্ত্রীকে হত্যায় স্বামীর ফাঁসি

বেতনের টাকা না দেওয়ায় স্ত্রীকে হত্যায় স্বামীর ফাঁসি

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১০ জানুয়ারী ২০১৯ (সাতক্ষীরা প্রতিনিধি) : বেতনের টাকা না দেওয়ায় স্ত্রীকে হত্যার দায়ে সাতক্ষীরায় আব্দুস সবুর মো্ল্লা (৫২) নামে এক ব্যক্তির ফাঁসির আদেশ দিয়েছেন জেলা ও দায়রা জজ আদলত। আজ বৃহস্পতিবার বেলা ১১ টার দিকে জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক সৈয়দ সাদিকুল ইসলাম তালুকদার এ আদেশ দেন। ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি আব্দুস সবুর মোল্লার বাড়ি কলারোয়া উপজেলার মুরারিকাটি গ্রামে। তার স্ত্রীর নাম রোমেছা খাতুন। তিনি কলারোয়া উপজেলার কুমারনাল গ্রামের মৃত. মেহের আলি সরদারের মেয়ে। মামলার বাদী নিহত রোমেছার ভাই জালাল উদ্দিন জানান, সবুর মোল্লার সঙ্গে তার বোনের বিয়ে হয়। বিয়ের পর তারা জানতে পারেন তার ভগ্নিপতির আরও একটি স্ত্রী আছে। এ নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে মাঝে মাঝে ঝগড়া হতো। তার ভগ্নিপতি কুমারনাল গ্রামে প্রথম স্ত্রীকে রেখে তার বোনকে নিয়ে মুরারিকাটি বাসায় থাকতো। রোমেছা এলজিইডি প্রকল্পের কাজ করতো। বেতন পাওয়ার পর তার ভগ্নিপতি বেতনের টাকা নেওয়ার জন্য তার বোনকে মারধর করতো।

২০১২ সালের ২০ আগস্ট বেতনের টাকা না দেওয়ায় তার বোনকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়। সেসময় এলাকাবাসী তার ভগ্নিপতিকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে। আব্দুস সবুর মোল্লা আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিও দেয়। পরবর্তীতে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা কলারোয়া থানার এসআই ফকির আজিজুর রহমান আসামি আব্দুস সবুর মোল্লার বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন। সাতক্ষীরা জজ কোর্টের পিপি অ্যাডভোকেট তপন কুমার দাশ জানান, স্ত্রী রোমেছা খাতুনকে হত্যার দায়ে সবুর মোল্লার ফাঁসির আদেশ দিয়েছে জেলা ও দায়র জজ আদালত। এ মামলায় নয়জন সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে আদালত আসামিকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করার আদেশ দিয়েছেন। রায় ঘোষণার সময় আব্দুস সবুর মোল্লা পলাতক ছিলেন।


সংশ্লিষ্ট আরও খবর

সর্বশেষ খবর

Today's Visitor