রবিবার, ২০শে জুলাই, ২০১৯ ইং

ইলহানকে জড়িয়ে ৯/১১’র ভিডিও দিয়ে সমালোচনায় ট্রাম্প

মুক্তখবর :
এপ্রিল ১৫, ২০১৯
news-image

ঢাকা, সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০১৯ (মুক্তখবর ডেস্ক) : যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেসের মুসলিম ডেমোক্রেটিক নারী সদস্য ইলহান ওমরের বক্তব্য জড়িয়ে ২০০১ সালের ৯/১১’র টুইন টাওয়ার হামলার একটি ভিডিও টুইট করে সমালোচনার শিকার হয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। শনিবার ট্রাম্পকে তিরস্কার করে কংগ্রেসের প্রতিনিধি পরিষদের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসি এক টুইটার বার্তায় বলেন, ৯/১১ হামলার স্মৃতি জেগে আছে এক পবিত্রতার পটভূমিতে। তাই রাজনৈতিক আক্রমণের জন্য ৯/১১ ছবি ব্যবহার করা প্রেসিডেন্টের উচিত নয়। খবর ডনের। গত ২৩ মার্চ কাউন্সিল অন আমেরিকান-ইসলামিক রিলেশন্স (কাইর) আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে ইলহান ওমর যুক্তরাষ্ট্রের ইসলাম ভীতি এবং নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে মসজিদে হামলার নিন্দা জানিয়ে বলেন, দ্বিতীয় শ্রেণির নাগরিক হিসেবে দীর্ঘদিন অস্বস্তির সঙ্গে বসবাস করছি আর এতে আমি ক্লান্ত।

তবে শুধু আমি না দেশের প্রত্যেক মুসলমানেরই এতে বিরক্ত হওয়া উচিৎ। ৯/১১ এর পর ‘কাইর’ প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল। কারণ তারা বুঝতে পেরেছিল কিছু লোক কিছু একটা করেছে এবং এ কারণে আমরা প্রত্যেকে আমাদের নাগরিক স্বাধীনতা হারাতে শুরু করেছি। ওমরের এই ‘কিছু লোক কিছু একটা করেছে’-মন্তব্যে করে ৯/১১ এর পরিস্থিতিকে খাটো করেছেন বলে অভিযোগ করেছেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও তার দলের রিপাবলিকানরা। এরই প্রেক্ষিতে শুক্রবার প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প টুইটারে টুইন টাওয়ার বিধ্বস্তের ছবির সঙ্গে হিজাব পরা ইলহান ওমরের ছবি জুড়ে দিয়ে ভিডিও পোস্ট করেন। আর লিখেছেন, ‘আমরা কখনো ভুলব না।’ প্রেসিডেন্টের টুইটে দেয়া ওমরের বক্তব্য ঘিরে তার সমালোচনায় সরব হয়েছে রিপাবলিকানদের পাশাপাশি ফক্স নিউজের মতো রক্ষণশীল গণমাধ্যমগুলোও।

ওমরকে আমেরিকা-বিদ্বেষী বলে মন্তব্য করেছেন রিপাবলিকান ন্যাশনাল কমিটির চেয়ারম্যান রোনা ম্যাকডেনিয়েল। তবে ওমরের পাশে দাঁড়িয়েছেন ডেমোক্রেটরা। তার বক্তব্যকে পরিস্থিতির সঙ্গে সঙ্গতিহীনভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে বলে পাল্টা অভিযোগ করেছেন তারা। ট্রাম্পের সমালোচকরাও বলছেন, তিনি মুসলিম বিদ্বেষ এবং মুসলিমদের বিরুদ্ধে সহিংসতা উস্কে দিতে ওমরের বক্তব্যকে ভিন্নভাবে ব্যবহার করেছেন। এদিকে শনিবার এক টুইটে ওমর বলেছেন, তাকে চুপ করানো যাবে না। কারণ কোনো ব্যক্তি- সে যতটা দুর্নীতিগ্রস্ত, ক্ষতিকর কিংবা নির্মমই হোক না কেন আমেরিকার প্রতি আমার অবিচল ভালোবাসায় হুমকি হতে পারবে না।