সোমবার, ১৯শে আগস্ট, ২০১৯ ইং

দুর্গাপুরে যুবতী নারী ধর্ষণের অভিযোগে মামলা, বিপাকে বাদীর পরিবার

মুক্তখবর :
এপ্রিল ২৫, ২০১৯
news-image

কলিহাসান, দুর্গাপুর (নেত্রকোনা )প্রতিনিধি : নেত্রকোনার দুর্গাপুরে জোরপূর্বক যুবতী নারী(৩৫)কে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা দায়ের করেছে ভিকটিমের পরিবার। ধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্ত রুপন মিয়া (রুকন) মামলা দায়েরের পর থেকেই নানানভাবে হুমকী দিয়ে আসছে ভিকটিম ও তাঁর পরিবারের লোকজনকে। মামলা করে এখন বিপাকে দিনাতীপাত করছে বাদী,জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা স্থানীয় প্রশাসনের। স্থানীয় স্বজন ও মামলার লিখিত এজাহার সূত্রে জানা যায়,গাঁওকান্দিয়া ইউনিয়নের চর জাগিরপাড়া গ্রামের সুন্দর আলীর যুবতী(৩৫)স্ত্রীকে সম্প্রতি তাঁর বসতঘরে রাতে একা পেয়ে মুখ চেপে ধরে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে রুপন মিয়া(রুকন)। সে পাশ^বর্তী গাঁওকান্দিয়া গ্রামের আঃ মজিদের পুত্র। এ ঘটনায় ভিকটিমের স্বামী বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন। নারী ও শিশূ মোকাঃনং-২১০/২০১৯। ভিকটিমের স্বামী সুন্দর আলী মুঠোফোনে কান্নাস্বরে প্রতিনিধিকে জানান,আমার ইজ্জত সব শেষ করে দিয়েছে। নেত্রকোনা কোর্টের সামনে প্রকাশ্যে মানুষের সামনে হুমকী দিয়েছে আমাকে মেরে ফেলবে।এ ঘটনায় একটি ফৌঃকাঃবিঃ আইনের ১০৭/১১৭(৩)ধারার বিধান মতে একটি মামলা করে রাখি। এতে আরো ক্ষিপ্ত হয়ে আসামী ও স্বজনরা হুমকী প্রদর্শণ করে আসছে। বিষয়টি স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানকে অবগত করার পরও স্থানীয় একশ্রেণীর কতিপয় মহলের ইন্ধনে আসামীরা আরো বেপরোয়া হয়ে উঠেছে বলে জোরদাবী করেন মামলার বাদী ও স্বামী। তবে এ ধর্ষণ ঘটনার সতত্যা নিশ্চিত করে ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল মতিন বলেন,আমি এ ন্যাক্কারজনক ঘটনার সাথে জড়িতদের দ্রুত বিচার দাবী করছি। সুশীল সমাজের দাবী,স্থানীয় জিও,এনজিও প্রতিনিধিদের নারী নির্যাতন,বাল্য-বিবাহ,ধর্ষণসহ নানা অপরাধমূলক কর্ম সম্পর্কে সচেতনতামূলক যেসকল কর্মসূচী ইতিমধ্যে পরিচালিত হয়ে আসছে তা প্রয়োজনের তুলনায় অপ্রতুল। এর বিস্তর প্রসার ও প্রচার ঘটানো উচিত। এ ব্যাপারে দুর্গাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ মিজানুর রহমান বলেন মামলাটি এফআইআর ও তদন্ত প্রতিবেদন দেওয়ার জন্য মহামান্য আদালত নির্দেশ দিয়েছেন। দ্রুততার সহিত তদন্তকাজ শুরু হবে।