বুধবার,১৫ই জুলাই, ২০২০ ইং

শেরপুরের ঝিনাইগাতীর দিঘীরপাড়-রামনগর রাস্তাটি ভেঙ্গে যাওয়ায় চরম দূর্ভোগে ১৮ গ্রামবাসী

মুক্তখবর :
এপ্রিল ৩০, ২০১৯
news-image
শেরপুর ঝিনাইগাতী প্রতিনিধি : শেরপুরের ঝিনাইগাতীর দিঘীরপাড়-রামনগর যাতায়াতের একমাত্র রাস্তাটি ভেঙ্গে যাওয়ায় চরম দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে ১৮ গ্রামের লোকজন। উক্ত রাস্তাটি দীর্ঘদিন পূর্বে মহারশী নদীর বন্যায় রাস্তাটির ব্যাপক ক্ষতি সাধন করে। ফলে রাস্তাটির চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়ে। অত্রাঞ্চলের কৃষক, শ্রমিক ও স্কুল-কলেজ পড়–য়া ছাত্র-ছাত্রীরা প্রায় ২/৩ কি.মি রাস্তা পায়ে হেটে চলাচল করতে হয়। কারণ রাস্তাটি খান-খন্ড ও সরু হওয়ায় কোন পরিবহন যাতায়াত করতে পারে না। যে কারণে গ্রামাঞ্চলের কৃষকরা তাদের কৃষিপণ্য বাজারজাত করা মহাবিপাকে পরেছে। বিকল্প কোন রাস্তা না থাকায় তাদের মাথায় করে কৃষিপণ্য বহন করে হাট-বাজারে আনতে হয়। এতে চরম দূর্ভোগ পোহাচ্ছে অত্র এলাকাবাসী। উক্ত রাস্তাটি মেরামতের জন্য সদর ইউপি চেয়ারম্যান মোফাজ্জল হোসেন চাঁন আশ্বাস দিলেও রাস্তাটি মেরামত করেনি। বর্তমানে অত্র এলাকাবাসীর দাবী অবিলম্বে রাস্তাটি মেরামতে দৃষ্টি দিবেন সংশ্লিষ্ট উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ এমন প্রত্যাশা ভোক্তভোগী মানুষের।  উল্লেখ্য, রাস্তাটি পূন: মেরামতের জন্য গতকাল ভোক্তভোগী এলাকা দিঘীরপাড় গ্রামের আ. কুদ্দুস, মিজান, আরফান আলী, মুনছর সরকার এবং মোস্তফা নর্বনির্বাচিত উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মোছা. লাইলী বেগম এর কাছে উক্ত রাস্তাটির মেরামতে আবেদন জানান। এলাকাবাসীর আবেদনের প্রেক্ষিতে নবনির্বাচিত মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান লাইলী বেগম উক্ত বিষয়ে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ যাতে দৃষ্টি দেন এমন প্রত্যাশার কথা তাদেরকে জানান। প্রকাশ থাকে যে, উক্ত রাস্তাটি মেরামত হলে সহজেই কৃষকের কৃষি পণ্য বাজার জাত করতে পারবে এবং উপজেলা সদরের সাথে যোগাযোগ ব্যবস্থার ব্যাপক উন্নতি হবে। এছাড়া স্কুল-কলেজ পড়–য়া ছাত্র/ছাত্রীরা উক্ত রাস্তাটি দিয়ে চরম দূর্ভোগে যাতায়াত করতে হয়। গ্রামাঞ্চলের কৃষিপণ্য বাজারে আনতে হলে ৩গুন রাস্তা ঘুরে বাজারে আসতে হয়। এতে সময় ও অর্থ দু’টিই বেশী লাগে। তাতে করে কৃষকের লাভের পরিবর্তে লোকসান গুনতে হয়। অবিলম্বে উক্ত রাস্তাটি মেরামতে সংশ্লিষ্ট উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিবেন এমন প্রত্যাশা ভোক্তভোগী এলাকাবাসীর।
এ ব্যপারে উপজেলা চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম বাদশা জানান, এবছর রাস্তাটি মেরামতের সিদ্ধান্ত ছিল, কিন্তু নির্বাচনে বিজয়ী না হওয়ার কারণে রাস্তাটি মেরামত করা আমার পক্ষে সম্ভব হলো না। এখন নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান আলহাজ্ব এস.এম আব্দুল্লাহেল ওয়ারেজ নাইম রাস্তাটি মেরামতে দৃষ্টি দিবেন এমন প্রত্যাশার কথা জানান।