শুক্রবার,১০ই জুলাই, ২০২০ ইং

জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষের অর্থ শাখায় মহাদুর্নীতির সিন্ডিকেট

মুক্তখবর :
মে ১৬, ২০১৯
news-image
নুর আলম প্রিন্স : জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষের প্রধান দপ্তরে অর্থ শাখার হিসাব রক্ষক শোয়েবুল আহসান এর বিরুদ্ধে সিন্ডিকেটের মাধ্যমে দুর্নীতি করে সরকারের কোটি কোটি টাকা জাল জালিয়াতি করে হাতিয়ে নিয়েছেন বলে গুরুতর অভিযোগ পাওয়া গেছে। অর্থ শাখার সিন্ডিকেটের মূল হোতা হিসাব রক্ষক শোয়েবুল আহসান। তার সিন্ডিকেটের সদস্যরা হলেন জিন্নাত, নাসির, উজ্জল, নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক গৃহায়ন কর্তৃপক্ষের একাধিক কর্মকর্তা বলেন, জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষ অর্থ শাখাকে সিন্ডিকেটের মাধ্যমে জিম্মি করে রেখেছেন শোয়েবুলগংরা। উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ অনুমোদন দিলেও তারা টাকা ছাড়া কোন চালান পাশ করেন না। সকল নথির চালান পাশ করার জন্য তাদেরকে নির্দিষ্ট পরিমাণ উৎকোচ প্রদান করতে হয়। এছাড়া দায়মুক্তি ছাড়পত্র প্রদানের নামে সেবা গ্রহিতাদের নিকট হতে জোড়পূর্বক অর্থ আদায় করে থাকেন এ দুর্নীতিবাজ সিন্ডিকেটেরা। সিটিআর-এর নামে ভূয়া চালানের মাধ্যমে সরকারের রাজস্ব খাতের কোটি কোটি টাকা লুটপাট করে খাচ্ছে মহা সিন্ডিকেটের দুর্র্নীতিবাজ শোয়েবুল আহসানরা। তারা সরকারী এফডিআরের কোন হিসাব প্রদর্শন করেননি। জনশ্রুতি রয়েছে শোয়েবুলগংরা বহু এফডিআরের টাকা উঠিয়ে নিজেরা ভাগ ভাটোয়ারা করে নিয়েছেন। দপ্তরের অপর একটি সূত্র থেকে জানা যায়, হিসাব রক্ষক শোয়েবুল আহসান অর্থ শাখার বহু ভূয়া বিল ভাউচার জালিয়াতি করে আজ সে কোটি কোটি টাকার মালিক বনে গেছেন। এ দুর্নীতির ব্যাপারে হিসাব রক্ষক শোয়েবুল আহসানের সাথে তার সেল ফোনে কল করে এ দুর্নীতির ব্যাপারে জানতে চাইলে সে ফোনটি কেটে দেন। একই ব্যাপারে জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান রাশিদুল ইসলামকে তার সেল ফোনে কল করলে সে প্রতিবেদককে বলেন আমি এখন মিটিংয়ে আছি। হিসাব রক্ষক শোয়েবুল আহসানগংদের আরো দুর্নীতির চাঞ্চল্যকর তথ্য পাওয়া গেছে যা আগামীতে ধারাবাহিক ভাবে প্রকাশ করা হবে।