বুধবার, ২০শে নভেম্বর, ২০১৯ ইং

নারীরা কীভাবে ইতিকাফে বসবে?

মুক্তখবর :
মে ২৮, ২০১৯
news-image

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০১৯ (ফিচার ডেস্ক): নামাজ, রোজা, হজ, জাকাত, পরিবার, সমাজসহ জীবনঘনিষ্ঠ ইসলামবিষয়ক প্রশ্নোত্তর অনুষ্ঠান ‘আপনার জিজ্ঞাসা’। জয়নুল আবেদীন আজাদের উপস্থাপনায় এনটিভির জনপ্রিয় এ অনুষ্ঠানে দ‍র্শকের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন বিশিষ্ট আলেম ড. মুহাম্মাদ সাইফুল্লাহ।

রমজানের বিশেষ আপনার জিজ্ঞাসার নবম পর্বে নারীরা কীভাবে ইতিকাফে বসবে, সে বিষয়ে টেলিফোনে জানতে চেয়েছেন কিবরিয়া। অনুলিখন করেছেন জান্নাত আরা পাপিয়া।

প্রশ্ন : আমার মা আমাদের বাসার মধ্যেই একটি কোণায় ইতিকাফে বসতে চায়। তিনি কীভাবে বসবেন? আর বাসার কোনো কাজ করতে পারবেন কি না?

উত্তর : প্রথমে ইতিকাফের বিধান হচ্ছে, ইতিকাফ করবে মসজিদে। আল্লাহ তায়ালা কোরআনের মধ্যে এরশাদ করেছেন সুরা আল বাকারার মধ্যে,‘তোমরা মসজিদে ইতিকাফের সময় নারীদের সঙ্গে দৈহিক সম্পর্কের চেষ্টা করবে না’। একই আয়াতের তফসিরের মধ্যে উল্লেখ করেছেন আল্লহ তায়ালা মসজিদকে নির্দিষ্ট করে দিয়েছেন, তোমরা মসজিদে ইতিকাফ কর।

তাই নারী হোক আর পুরুষ হোক সবার জন্য ইতিকাফের শর্ত হচ্ছে মসজিদ, ঘরের ভেতরে নয়। আল্লাহ তায়ালা যেহেতেু মসজিদের কথা উল্লেখ করে দিয়েছেন সেহেতু ইতিকাফ মসজিদেই আদায় করতে হবে এবং প্রত্যেকটা মসজিদ কমিটির উচিৎ হচ্ছে নারীদের জন্য ইতিকাফের ব্যবস্থা করা।

আর কোনো মসজিদে যদি নারীদের জন্য কোনো ব্যবস্থা না থাকে তাহলে তো তিনি ইতিকাফ করতে পারবেন না, তিনি তো মাহরুম হয়ে গেলেন বা বঞ্চিত হয়ে গেলেন। একটি মাসয়ালায় আলেমদের মধ্যে মতোপার্থক্য রয়েছে সেটা হলো, নারিগণ তারা ঘরের মধ্যে ইতিকাফ করতে পারবে কি না। জুমহুর ওলামায় কেরাম বলছেন না ঘরের মধে ইতিকাফ করা যাবে না বরং শর্ত হচ্ছে ইতিকাফের জন্য মসজিদে যেতে হবে। আর হানাফি মাজহাবের ওলামায় কেরাম বলছেন, যদি নারিরা ঘরের মধ্যে ইতিকাফ করেন তাহলে তাদের জন্য এটি জায়েজ রয়েছে।

কিন্তু আমরা যদি দলিল গুলো দেখি তাহলে বুঝতে পারবো যে, ঘরের মধ্যে ইতিকাফের বিষয়টি প্রজজ্য হয় না। কারণ ইতিকাফের মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে, দুনিয়া থেকে আপনি নিজেকে কেন্দ্রীয় ভুক্ত কারা বা আল্লাহর রাস্তায় নিজেকে আবদ্ধ করা। ঘরের মধ্যে থাকলেন মানে তো আপনি পরিবারের মধ্যেই থেকে গেলেন।