শুক্রবার, ২১শে নভেম্বর, ২০১৯ ইং

ত্বকের ফাঙ্গাস হলে করণীয় কী?

মুক্তখবর :
জুলাই ২, ২০১৯
news-image

ঢাকা, মঙ্গলবার, ০২ জুলাই ২০১৯ (স্বাস্থ্য ডেস্ক): ত্বকের ফাঙ্গাস হলে এটি সাধারণত গোল গোল বা রিংয়ের মতো হয়। চারপাশটা একটু গাঢ় থাকে। মাঝখানের জায়গাটা একটু লালচে ধরনের বা খয়েরি খয়েরি হয়।

ত্বকের ফাঙ্গাস হলে কী করবেন, এ বিষয়ে এনটিভির নিয়মিত আয়োজন স্বাস্থ্য প্রতিদিন অনুষ্ঠানের ৩৪৭৭তম পর্বে কথা বলেছেন ডা. মেহরান হোসেন। বর্তমানে তিনি ইউএস-বাংলা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের চর্ম ও যৌনরোগ বিভাগের সহকারী অধ্যাপক হিসেবে কর্মরত।

প্রশ্ন : আপনারা কীভাবে পরামর্শ দেন রোগীদের?

উত্তর : আমরা প্রথমে রোগীকে জিজ্ঞেস করি, এটি কত দিন ধরে চলছে। আমাদের দেশের রোগীরা সাধারণত বলতে চান না। কারণ, শরীরের বিভিন্ন গোপনাঙ্গে হয়। রোগী বিভিন্ন দোকানে গিয়ে হয়তো মলম চান। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে তাঁরা স্টেরয়েড জাতীয় মলম ব্যবহার করেন। দেখা যায়, স্টেরয়েড হলো একটি প্রদাহরোধী ওষুধ। প্রাথমিক অবস্থায় দেখা যায়, ফাঙ্গাসটা কমিয়ে দিচ্ছে। কিন্তু পরে এটি মারাত্মকভাবে বেড়ে যায়। শরীরের বিভিন্ন জায়গায় হয়। এই শব্দটাকে আমরা বলি টিনিয়া ইনকোগনেশিও। এটি ব্যাপক আকার ধারণ করে। দেখা যায়, যখন নিজে নিজে ঠিক করতে পারছে না, তখন তারা চিকিৎসকের কাছে যাচ্ছে। এ ক্ষেত্রে আমরা প্রথমে জিজ্ঞেস করি, তার কী ধরনের সমস্যা হচ্ছে। অন্য কোনো মলম ব্যবহার করেছে কি না।

এটার রোগ নির্ণয় করা খুব বেশি কঠিন নয়। একজন চর্মরোগ বিশেষজ্ঞের জন্য টিনিয়া বা ফাঙ্গাল ইনফেকশন নির্ণয় খুব সহজ। ক্লিনিক্যাল ডায়াগনোসিস করা যায়। খুব জটিল অবস্থা থাকলে ওডস ল্যাম্প যেটি, সেটি করতে পারি।

এরপরও যদি আমাদের কিছু বিষয়ে দ্বিধা থাকে, তাহলে লেশন থেকে স্ক্র্যাপিং করি। সামান্য একটু চামড়া তুলে, কালচার করতে দিই। ফাঙ্গাসের অনেক ধরনের অরগানিজম রয়েছে। সেটি আমরা নির্দিষ্টভাবে নির্ণয় করতে পারি। মুখে খাওয়ার ওষুধ দিতে পারি।