শনিবার, ১৯শে জুলাই, ২০১৯ ইং

আগামী বছর থেকে ‘মাদার অব হিউম্যানিটি’ পদক দেবে সরকার

মুক্তখবর :
জুলাই ১১, ২০১৯
news-image

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১১ জুলাই ২০১৯ (স্টাফ রিপোর্টার) : আগামী বছর (২০২০) থেকে ‘মাদার অব হিউম্যানিটি সমাজকল্যাণ পদক’ দেবে সরকার। বয়স্ক, বিধবা ও স্বামী নিগৃহীতা নারীদের কল্যাণ ও পুনর্বাসন এবং সামাজিক ক্ষেত্রে বিশেষ অবদানের জন্য এ পদক দেয়া হবে।

২ জানুয়ারি জাতীয় সমাজসেবা দিবসে এ পদক দেয়ার লক্ষ্য নিয়ে কার্যক্রম শুরু করেছে সমাজ কল্যাণ মন্ত্রণালয়। এরই মধ্যে মনোনয়ন আহ্বান করে সব মন্ত্রণালয় ও বিভাগে চিঠি পাঠানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে পত্রিকায়। অনগ্রসর মানুষের জীবনমান উন্নয়নে ভূমিকা রাখা এবং মিয়ানমারের ১১ লাখ নাগরিককে আশ্রয় দিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সারা বিশ্বে ‘মাদার অব হিউম্যানিটি’ হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছেন। তাই প্রধানমন্ত্রীর সে উপাধি অনুসারেই ‘মাদার অব হিউম্যানিটি সমাজকল্যাণ পদক’ প্রচলন করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা।

চিঠি অনুযায়ী, জেলা পর্যায়ের কমিটিতে আবেদন গ্রহণ ৩১ জুলাই, জেলা কমিটিতে মনোনয়ন চূড়ান্ত ১৭ আগস্ট, জেলা কমিটির মন্ত্রণালয়ে মনোনয়ন সুপারিশ পাঠানো ৩১ আগস্ট, মন্ত্রণালয় পর্যায়ে সরকারি প্রতিষ্ঠান মনোনয়ন চূড়ান্তকরণ ২০ আগস্ট, জাতীয় কমিটির মনোনয়ন চূড়ান্তকরণ করা হবে ১৫ অক্টোবর। জাতীয় পুরস্কার সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির অনুমোদনের জন্য মনোনয়ন মন্ত্রিপরিষদ বিভাগে পাঠানো হবে ৩১ অক্টোবর। এরপর প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদনের পর পুরস্কার চূড়ান্ত হবে।
এর আগে গত বছরের ১৯ নভেম্বর ‘মাদার অব হিউম্যানিটি সমাজকল্যাণ পদক নীতিমালা ২০১৮’ এর খসড়া অনুমোদন দেয় মন্ত্রিসভা। নীতিমালা অনুযায়ী, পাঁচ ক্ষেত্রে এ পুরস্কার দেয়া হবে। পদক সংখ্যা প্রতি বছর ব্যক্তি পর্যায়ে তিনটি এবং সংস্থা বা প্রতিষ্ঠান পর্যায়ে দুটিসহ মোট পাঁচটি। পদকপ্রাপ্ত ব্যক্তি ও সংস্থাকে ১৮ ক্যারেট মানের ২৫ গ্রাম স্বর্ণের একটি পদক, পদকের একটি রেপ্লিকা, ২ লাখ টাকা ও একটি সম্মাননা সনদ দেয়া হবে।