সোমবার, ১৬ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং

 চাঁপাইনবাবগঞ্জে পরকীয়ার জেরে খুন; ৩ জনের ফাঁসি ও ৪ জনের যাবজ্জীবন

মুক্তখবর :
জুলাই ৩১, ২০১৯
news-image

চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি: চাঁপাইনবাবগঞ্জে পরকিয়ার জেরে একটি হত্যা মামলায় রায়ে ৩ জনকে ফাঁসি এবং স্ত্রীসহ ৪ জনকে যাবজ্জীবন কারাদন্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। বুধবার দুপুরে চাঁপাইনবাবগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. শওকত আলী এ রায় দেন। রায়ে ফাঁসি ও যাবজ্জীবন দন্ডপ্রাপ্তদের সকলকে ১ লক্ষ টাকা করে জরিমানার আদেশ দিয়েছেন। মামলার রায়ে ৮ জনকে বেকসুর খালাস প্রদান করা হয়। তবে যাবজ্জীবন দন্ডপ্রাপ্তদের মধ্যে মহেষপুরের মৃত রবুর ছেলে মো. আসলাম পলাতক রয়েছে। ফাঁসির দন্ডপ্রাপ্ত আসামীরা হচ্ছে, শিবগঞ্জ উপজেলার বলিহারপুরের মৃত মো. মেনশাদ মন্ডলের ছেলে মো. মেহেরাব হোসেন বাচ্চু, মহেষপুরের মো. বাহার উদ্দীনের ছেলে মো. জামাল উদ্দীন ও ছোট মহেষপুরের আব্দুস সাত্তার সেতাবের ছেলে মো. হযরত আলী। যাবজ্জীবন কারাদন্ডপ্রাপ্তরা হচ্ছে, নিহত শিবগঞ্জ উপজেলার মো. নাইমুল ইসলামের ছেলে রাকিব উরফে বাবুর স্ত্রী সায়েরা খাতুন, ছোট মহেষপুরের মৃত রবুর ছেলে মো. আসলাম, মো. আলাউদ্দীনের ছেলে মো. মোহবুল, পরানপুর বলিহহারপুরের মো. মোংলুর ছেলে মো. মিটুল। মামলার বিবরণ ও অতিরিক্ত পিপি আঞ্জুমান আরা সুত্রে জানা যায়, ২০১৫ সালের ২৯ মার্চ রাত আনুমানিক ৯টার সময় পরকিয়ার জেরে শিবগঞ্জ উপজেলার মো. নাইমুল ইসলামের ছেলে রাকিব উরফে বাবুকে পিকনিক করার নাম করে মেহেরাব হোসেন বাচ্চুর নেতুত্বে ডেকে নিয়ে নৃসংসভাবে হত্যা করে মহানন্দা নদীতে লাশ ফেলে দেয়া হয়। পরদিন সকালে জেলেদের জালে লাশ উদ্বার হয়। পরদিন নিহতের বাবা নাইমুল ইসলাম মামলা দায়ের করলে গত ৩০/০৭/২০১৬ইং তারিখ শিবগঞ্জ থানার এস.আই আব্দুল করিম ১৫জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশীট দাখিল করেন। ১৯ জনের সাক্ষ্য ও প্রমানাদী শেষে আদালত বুধবার দুপুরে এ রায় ঘোষণা করেন।