বুধবার, ১৭ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং

চাকরির প্রলোভনে গারো তরুণীকে ধর্ষণের চেষ্টা, ক্লিনিক মালিক গ্রেফতার

মুক্তখবর :
আগস্ট ১৯, ২০১৯
news-image

ঢাকা, সোমবার, ১৯ আগষ্ট ২০১৯ (নিজস্ব প্রতিনিধি) : ময়মনসিংহ নগরীর ব্রাহ্মপল্লী এলাকায় পদ্মা জেনারেল (প্রা:) হাসপাতাল এন্ড ডায়াগনোস্টিক সেন্টারে এক গারো তরুণীকে নার্সের চাকরি দেয়ার কথা বলে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগে প্রাইভেট ক্লিনিকের মালিককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ । এ ঘটনায় ওই নির্যাতিতা তরুণী বাদি হয়ে পদ্মা জেনারেল হাসপাতালের ম্যানেজার আলম মিয়া ও ক্লিনিক মালিক মজিবুর রহমান বাবুলের নাম উল্লেখ করে কোতোয়ালী মডেল থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করেছেন। অভিযোগে জানা গেছে, নার্স পদে চাকরির বিষয়ে পূর্বে থেকে কথা বলে রবিবার (১৮ আগস্ট) বিকেলে পদ্মা প্রাইভেট হাসপাতালে আসে ধর্ষণ চেষ্টার শিকার ওই তরুণীসহ আরও ৫ জন গারো তরুণী। পরে ম্যানেজার আলম মিয়া একজনকে ক্লিনিকের (ওটি) রুমের পাশে নির্জন রুমে নিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। এ সময় বাকী চার তরুণী তাৎক্ষনিক প্রতিবাদী হলে বিষয়টি আপোষ মিমাংসার চেষ্টা চালায় হাসপাতাল মালিক মজিবুর রহমান বাবুল। এরই মধ্যে পালিয়ে যায় ধর্ষণ চেষ্টাকারী ম্যানেজার আলম মিয়া। ঘটনার পর পুলিশ তাৎক্ষনিক অভিযান চালিয়ে হাসপাতালের মালিক মজিবুর রহমান বাবুলকে আটক করে। ঘটনার সত্যতা শিকার করে কোতোয়ালী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ মাহমুদুল ইসলাম বলেন, আইনগত পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। এ ঘটনায় মূল আসামীকে পালিয়ে যেতে সহায়তা করায় মালিককে আটক করা হয়েছে। মূল আসামিকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।