শুক্রবার, ২০শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং

‘আসামিদের পিটিয়ে-নখ তুলে তারেক রহমানের নাম বলানো হয়েছে’

মুক্তখবর :
আগস্ট ২২, ২০১৯
news-image

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২২ আগষ্ট ২০১৯ (স্টাফ রিপোর্টার) : একুশে আগস্টের গ্রেনেড হামলার ঘটনায় বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে জড়ানোর জন্য আসামিদের পিটিয়ে, নখ তুলে, জোর করে স্বীকারোক্তি আদায় করা হয়েছে বলে দাবি করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। বুধবার দুপুরে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে তিনি একথা বলেন। রিজভী বলেন, বিএনপির শাসনামলে একুশ আগস্ট ঘটলেও এর দায়ভার বিএনপির ওপর বর্তায় না। আওয়ামী লীগের আমলে পিলখানা হত্যাকাণ্ড হয়েছে। তাহলে সেজন্য কি আওয়ামী লীগ দায়ী? নাইন ইলেভেনের যে ঘটনা ঘটলো সেখানে তো কেউ বলেনি যে যারা সরকারে ছিল তাদের কারণে হয়েছে। বিশ্বব্যাপী কত ধরনের হানাহানি, সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদের উত্থান হয়েছে। এখন কোথা থেকে কী হয়েছে সেটা বস্তুনিষ্ঠ তদন্তের মাধ্যমে বের করতে হবে। একুশ আগস্টের ঘটনায় তারেক রহমানকে উদ্দেশ্যমূলকভাবে ফাঁসানো হয়েছে দাবি করে বিএনপির এই নেতা বলেন, তারেক রহমানকে উদ্দেশ্যমূলক ফাঁসানোর জন্য তারা ক্ষমতায় এসে জোর করে আসামিদের পিটিয়ে হাতের নখ তুলে স্বীকারোক্তি আদায় করেছে। তারপরও কিন্তু তারা ম্যাজিস্টেটের কাছে বলেছে যে জোর করে টর্চার করে স্বীকারোক্তি আদায় করা হয়েছে। এরপর তো আর কোনো কথা থাকতে পারে না। অপরাধ করলে তারেক রহমান দেশ থেকে পালিয়ে যেতেন এমন মন্তব্য করে রিজভী বলেন, তিনি তো দেশ থেকে কোথাও যাননি। খালেদা জিয়া শেষদিন পর্যন্ত গণতন্ত্রের জন্য লড়াই করেছেন। তার যে সংগ্রাম এ সংগ্রাম হচ্ছে গণতন্ত্রকে ফিরিয়ে আনার সংগ্রাম। এটা সম্পূর্ণ চক্রান্তের নীল নকশা মাস্টারপ্ল্যান করেছে তারা, যারা ক্ষমতাসীন। সংবাদ সম্মেলনে চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা নাজমুল হক নান্নু, বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, প্রকাশনা সম্পাদক হাবিবুল ইসলাম হাবিব, সহ-দফতর সম্পাদক ‍মুনীর হোসেন, নির্বাহী সদস্য আবু নাসের মোহাম্মদ রহমাতুল্লাহ, আমিনুল ইসলাম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।