শুক্রবার, ২০শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং

পাখির রাজ্য চর বিজয়

মুক্তখবর :
আগস্ট ২৪, ২০১৯
news-image

ঢাকা, শনিবার, ২৪ আগষ্ট ২০১৯ (ফিচার ডেস্ক) : প্রতিদিনের ক্লান্তি ও একঘেয়েমি দূর করতে ভ্রমণের কোনো বিকল্প নেই। অনেকেরই ইচ্ছে করে শহুরে কোলাহল ছেড়ে দু-একদিনের জন্য নিরিবিলি কোনো প্রাকৃতিক পরিবেশে ঘুরে আসতে। আপনার এমন একটি ইচ্ছে পূরণে আপনিও ঘুরে আসতে পারেন কুয়াকাটার ‘চর বিজয়’। সাগরকন্যা কুয়াকাটা সমুদ্র সৈকত থেকে প্রায় ৩০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পূর্ব কোণে বঙ্গোপসাগরের বুকে জেগে ওঠা পর্যটনের নতুন সম্ভাবনা ‘চর বিজয়’। কোলাহল মুক্ত এ দ্বীপে শুধু পাখি ও লাল কাকঁড়ার অবাধ বিচরণ। এই দ্বীপটিতে বসে দেখা যায় সূর্যোদয় ও সূর্যাস্ত। চারদিকে সমুদ্রের গর্জন ও পাখির কিচির মিচির শব্দ যে কারো মনকে জয় করে নেবে। প্রায় ১০ বর্গ কিলোমিটারের এই দ্বীপটিতে কোনো জনবসতি কিংবা গাছপালা নেই। জনবসতিহীন দ্বীপজুড়েই লাল কাকঁড়া ও নানা প্রজাতির অতিথি পাখির অভয়াশ্রম। কুয়াকাটা থেকে টুরিস্ট বোটে দ্বীপে যেতে প্রায় দুই ঘণ্টা সময় লাগে এ সময় আপনি উপভোগ করতে পারবেন সমুদ্রের নয়নাভীরাম সৌন্দর্য। বিস্তীর্ণ জলরাশি ও সমুদ্রের বিশালতার মাঝে আপনি হারিয়ে যাবেন অন্য জগতে। আপনার ভ্রমণে চর বিজয় ভিন্ন অভিজ্ঞতা যোগ করবে। দ্বীপের কাছাকাছি আসলেই আপনাকে স্বাগত জানাবে অসংখ্য অতিথিপাখি। বোট থেকে নামলেই লাল গালিচা সংবর্ধনা জানাবে লাল কাকঁড়ায় জড়ানো পুরো দ্বীপ। দ্বীপের স্বচ্ছজলে সামুদ্রিক মাছের ছোটাছুটি নিমিষেই আপনার সারা দিনের ক্লান্ত মনকে ভরিয়ে দিবে অন্য রকম এক আনন্দে। যারা ক্যাম্পিং করতে পছন্দ করেন তাদের জন্য চর বিজয় হতে পারে আদর্শ স্থান। একটি পূর্ণিমা রাতে ক্যাম্পিং করে উপভোগ করতে পারেন স্বর্গীয় অনুভূতি। সমুদ্রের মধ্যে এই স্বপ্নের দ্বীপে থাকবে শুধু আপনাদের রঙিন তাবুগুলো। দ্বীপজুড়ে নিজেদের প্রতিনিধিত্ব। বিকেলে দ্বীপে ঘুড়ি উড়ানো, সন্ধ্যায় দেখবেন সমুদ্রে সূর্য অস্ত যাওয়ার অপরূপ দৃশ্য। রাতে সামুদ্রিক মাছের বার-বি-কিউ, ক্যাম্প ফায়ার ও নিজেদের পরিবেশনায় গান শেষে বিলিয়ন স্টারের নিচে তাবুতে রাতযাপন করবেন। সকালে তাবুতে বসেই দেখা মিলবে পূর্ব আকাশে রক্তিম সূর্যোদয়। এমন একটি স্বপ্নের রাত যে কারো জীবনের গ্লানি দূর করে দিয়ে স্মরণীয় হয়ে থাকবে।

বি.দ্র. দ্বীপে কোনো দোকানপাট নেই, তাই কুয়াকাটা থেকেই খাবার ও পানিসহ প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র বোটে নিয়ে যেতে হবে। সকালে গিয়ে বিকেলেই ফিরে আসা যায়।

খরচ

পর্যটন মৌসুমে কুয়াকাটা সমুদ্র সৈকত থেকে প্রতিদিন সকালে চর বিজয়ের উদ্দেশে টুরিস্ট বোট ছাড়ে (ভাড়া আসা-যাওয়া ৪০০ টাকা)। এ ছাড়া যেকোনো সময় রিজার্ভ বোট নিয়ে যাওয়া যায় (রিজার্ভ বোটভাড়া পাঁচ হাজার টাকা)।