বৃহস্পতিবার, ২৩শে অক্টোবর, ২০১৯ ইং

শ্রীপুরে বাবার বিরুদ্ধে কিশোরী দুই যমজ মেয়েকে ধর্ষনের অভিযোগ

মুক্তখবর :
সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৯
news-image

ঢাকা, শনিবার, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯ (নিজস্ব প্রতিনিধি) : গাজীপুরের শ্রীপুরে কিশোরী (১৬) দুই যমজ মেয়েকে ধর্ষনের অভিযোগে বাবা জাহাঙ্গীর আলম কাজলকে (৪৫) গ্রেপ্তার করেছে শ্রীপুর থানা পুলিশ। কাজল মাওনা ইউনিয়নের মাওনা বাজার এলাকার মৃত হাবেজ বাইন্নার ছেলে। শুক্রবার রাতে তার নিজ বাড়ী থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। ভিকটিমের মা বাদী হয়ে শ্রীপুর থানায় ধর্ষন মামলা দায়ের করেন। শ্রীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) আবুল কালাম ভূঞা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। শ্রীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) আবুল কালাম ভূঞা জানান, ১৯৯৫ সালে উপজেলার গাজীপুর ইউনিয়নের ধনুয়া গ্রামের আলাউদ্দিনের মেয়ে আমেনা খাতুনকে বিয়ে করেন জাহাঙ্গীর আলম কাজল। এরই মাঝে তাদের দাম্পত্য জীবনে দুই যমজ কন্যা সন্তানের জন্ম হয়। বিয়ের দেড় বছর পর কাজল প্রথম স্ত্রীর অনুমতি না নিয়ে দ্বিতীয় বিয়ে করে। পরে দুই মেয়েকে নিয়ে আমেনা খাতুন তার বাবার বাড়ী চলে যায়। সেখানে মাঝে মাঝে কাজল আসা-যাওয়া করতো। এক পর্যায়ে ২০১৭ সালের মে মাস থেকে ২০১৯ সালের জুলাই পর্যন্ত তার দুই কিশোরী মেয়েকে জোরপূর্বক ধর্ষন করে আসছে কাজল। এ ঘটনা থানা পুলিশ অথবা কাউকে জানালে যমজ দুই মেয়েসহ স্ত্রীকে হত্যা করার হুমকি দেয়। এ ভয়ে তারা থানা পুলিশ বা কাউকে বিষয়টি জানায়নি। পরে ভিকটিমের মা দুই মেয়েকে নিয়ে গাজীপুরে পুলিশ সুপার (এসপি) শামসুন্নাহারের কাছে গিয়ে ঘটনা খুলে বললে তিনি আইনের আশ্রয় নেওয়ার পরামর্শ দেয়। মামলা করায় ভিকটিম ও তাদের মা এখনো ভয়ে আছেন। জামিনে ছাড়া পেয়ে কাজল তাদেরকে হত্যা করতে পারে বলে তারা শঙ্কায় রয়েছেন। কিশোরীদেরকে শারীরিক পরীক্ষার জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দিন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। গ্রেপ্তারকৃত বাবা জাহাঙ্গীর আলম কাজলকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।