বুধবার, ২৩শে অক্টোবর, ২০১৯ ইং

সৌদি আরবের দুটি তেল স্থাপনায় ড্রোন হামলা, ব্যাপক অগ্নিকাণ্ড

মুক্তখবর :
সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৯
news-image

ঢাকা, শনিবার, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯ (মুক্তখবর ডেস্ক) : সৌদি আরবের রাষ্ট্রীয় তেল কোম্পানি আরামকোর মালিকানাধীন বড় দুটি তেল স্থাপনায় ড্রোন হামলা চালানো হয়েছে। ভিডিও ফুটেজে বিশ্বের সবচেয়ে বড় তেল প্রক্রিয়াজাত কেন্দ্র আবকাইক-এ ড্রোন হামলার পর আগুন জ্বলতে দেখা গেছে। এছাড়া পশ্চিমাঞ্চলে খুরাইস তেল ক্ষেত্রে হামলার পর সেখানেও আগুন জ্বলছে। তবে দেশটির রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে দুটি স্থানের আগুনই এখন নিয়ন্ত্রণে। এর আগে সৌদি আরবের তেল স্থাপনায় ড্রোন হামলার দায় ইরান সমর্থিত হুথি বিদ্রোহীরা স্বীকার করে। তবে সাম্প্রতিক হামলার দায় কেউ স্বীকার করেনি। সৌদি কর্তৃপক্ষও এখন পর্যন্ত এই ঘটনায় কাউকে দায়ী করেনি। ২০১৫ সালের মার্চ থেকে ইরান সমর্থিত ইয়েমেনের হুথি বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে লড়াই করছে সৌদি আরবের নেতৃত্বে একটি সামরিক জোট। ওই লড়াই শুরুর পর থেকে সৌদি আরবে বেশ কয়েক বার হামলা চালানোর কথা স্বীকার করেছে হুথি বিদ্রোহীরা। তবে শনিবারের হামলা প্রসঙ্গে এখনও কোনও তথ্য জানায়নি তারা। সরকারি সৌদি প্রেস এজেন্সি জানিয়েছে, স্থানীয় সময় ভোর চারটায় আবকাইক ও খুরাইসে তেল স্থাপনায় ড্রোন হামলার কারণে সৃষ্ট আগুন মোকাবিলা শুরু করে আরামকোর শিল্প নিরাপত্তা দল। দুই জায়গার আগুনই এখন নিয়ন্ত্রণে। সৌদি আরবের পূর্বাঞ্চলীয় প্রদেশ দাহারান থেকে ৬০ কিলোমিটার দক্ষিণপশ্চিমে অবস্থিত আবকাইক তেল স্থাপনা। আর সৌদির দ্বিতীয় বৃহত্তম তেল স্থাপনা খুরাইস ওই স্থান থেকে আরও ২০০ কিলোমিটার দক্ষিণ পশ্চিমে অবস্থিত। অনলাইনে ছড়িয়ে পড়া ফুটেজে দু্টি তেল স্থাপনা থেকেই বিশালাকার ধোঁয়ার কুন্ডলি উড়তে দেখা গেছে। কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যমআল জাজিরার খবরে বলা হয়েছে, অগ্নিকাণ্ডের ঘটনাস্থল থেকে গোলাগুলির আওয়াজও শোনা গেছে। ২০০৬ সালের ফেব্রুয়ারিতে আবকাইক তেল স্থাপনায় হামলার চেষ্টা চালায় আল কায়েদা। তাদের এক আত্মঘাতী হামলাকারী তেল স্থাপনার অভ্যন্তরে ঢোকার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়।