বুধবার, ১৩ই নভেম্বর, ২০১৯ ইং

হুতিদের শান্তি প্রস্তাবের পর সৌদি হামলা, ৭ শিশুসহ নিহত ১৬

মুক্তখবর :
সেপ্টেম্বর ২৫, ২০১৯
news-image

ঢাকা, বুধবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯ (মুক্তখবর ডেস্ক) : যুদ্ধবিধ্বস্ত ইয়েমেনে সৌদি নেতৃত্বাধীন জোটের হামলায় সাত শিশু ও চার নারীসহ ১৬ জন নিহত হয়েছেন। দেশটির কর্মকর্তা ও চিকিৎসকদের বরাতে বার্তা সংস্থা এএফপি এমন তথ্য দিয়েছে। সৌদিতে ড্রোন ও দূলপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র হামলা বন্ধে ইরান সমর্থিত হুতি বিদ্রোহীদের একটি প্রস্তাবের কয়েকদিন পরই এই হামলা চালানো হয়েছে। সাড়ের চার বছরের বেশি সময়ে চলমান ওই যুদ্ধ বন্ধের এই উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছে জাতিসংঘ।

এর আগে গত ১৪ সেপ্টেম্বর সৌদি আরবের দুটি তেল স্থাপনায় হামলার দায় স্বীকার করেছে হুতিরা। ওই হামলায় বিশ্বের তেল উৎপাদন পাঁচ শতাংশ কমে গিয়েছিল। এতে বিশ্ববাজারে তেলের দামও সর্বোচ্চ বেড়ে গিয়েছিল।

যদিও সৌদি আরব ও যুক্তরাষ্ট্র ওই হামলার জন্য ইরানকে দায়ী করে আসছে। আর ইরান বারবার সেই অভিযোগ অস্বীকার করছে। যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তাদের দাবি, ক্ষেপণাস্ত্র ও ড্রোন দিয়ে ওই হামলা চালানো হয়েছিল।

মঙ্গলবার দক্ষিণ ইয়েমেনের দালেহ প্রদেশের কাতাবায় বিমান হামলা চালিয়েছে সৌদি জোট। এই প্রদেশটির একটা অংশ হুতিদের নিয়ন্ত্রণে। হুতিদের শান্তি প্রস্তাবের পর এই প্রথম কোনো বড় ধরনের বিমান হামলা চালিয়েছে সৌদি।

নাম প্রকাশে এক কর্মকর্তা এএফপিকে বলেন, নারী ও শিশুসহ ১৬ জন সৌদি হামলা নিহত হয়েছেন। এছাড়াও আহত হয়েছেন আরও নয়জন। দালেহ প্রদেশের একটি বাড়ি লক্ষ্যবস্তু করে ওই হামলা চালানো হয়।

ইব্ব প্রদেশের কাছেই আল থাওরা হাসপাতালের এক চিকিৎসক বলেন, নিহতদের মধ্যে সাত শিশু ও চার নারী রয়েছে। সাহায্য সংস্থা সেভ দ্য চিলড্রেন জানিয়েছে, বিস্ফোরণে আহত একটি শিশু তার পুরো পরিবারকে হারিয়েছে। এমন ভয়াবহ নৃশংসতা চালিয়েও দায়মুক্তি পাওয়ার এই ঘটনা আমরা সহ্য করতে পারছি না।

ইয়েমেনি নাগরিকদের বিরুদ্ধে সৌদি আরবের অব্যাহত আগ্রাসনের নিন্দা জানিয়েছে হুতিরা। তারা বলেন, আগ্রাসনকারীরা শান্তির বার্তা বুঝতে পারেনি। তারা কেবল ড্রোন ও ক্ষেপণাস্ত্রের ক্ষমতাই বোঝে।