শুক্রবার, ১৮ই অক্টোবর, ২০১৯ ইং

দুদুকের সাবেক ডিডি আহসানের বিরুদ্ধে বেনাপোল কাস্টমসের মামলা

মুক্তখবর :
সেপ্টেম্বর ২৫, ২০১৯
news-image

ঢাকা, বুধবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯ (নিজস্ব প্রতিনিধি) : দূর্নীতি দমন কমিশনে (দুদক) এর সাবেক ডিডি আহসান আলীর বিরুদ্ধে কাস্টম হাউস বেনাপোল পোর্ট থানার মামলা। তিনি কাস্টম হাউস, বেনাপোলের কমিশনার বিরুদ্ধে একটি বেনামী চিঠি লিখে সশরীরে দুদকসহ শতাধিক দপ্তর ও মিডিয়ায় বিতরণ করেন। আজ বুধবার (২৫ সেপ্টেম্বর) সকাল ৯টার বেনাপোল কাস্টম হাউসের পক্ষে মামলাটি করেন সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা জিএম আশরাফুল ইসলাম। মামলা নং-৩৮ তারিখ ২৫/০৯/১৯ ইং। মামলার বিবরণ থেকে জানা যায়, সম্প্রতি বেনাপোল সিএন্ডএফ এজেন্টেস এসোসিয়েশন ১৯ সেপ্টেম্বর ৮০০ কোটি টাকা রাজস্ব ক্ষতি, কাস্টম হাউসকে স্থবির করা, আমদানি কমায় ও বাণিজ্য পরিবেশ বিনষ্টে কমিশনার হয়রানির অপরাধে দুদকের ভূয়া ডিজি পরিচয়দাতা আহসান আলীকে গ্রেফতারের দাবী করেছে। সম্প্রতি প্রায় দু হাজার কোটি টাকা মূল্যের ৬৭ মণ (২.৫ মে. টন) ভায়াগ্রা কমিশনার না ছাড়ায় ক্ষতিগ্রস্থ একটি মহল ও চোরাকারবারীদের গডফাদার আহসান আলীর নেতৃত্তে চোরাকারবারী ও সাংবাদিক নামধারী একটি সংঘবদ্ধ চক্র কমিশনার ও বেনাপোল কাস্টম হাউসের বিরুদ্ধে পরিকল্পিত মিথ্যাচার, অপপ্রচার ও প্রতিশোধমূলক কর্মকান্ডে লিপ্ত আছে। কেবল হয়রানি, শত্রুতামূলক প্রতিহিংসা চরিতার্থের জন্যে আহসান আলী দুদকের মতো জাতীয় প্রতিষ্ঠানের নাম, পদবী ও প্রশাসনকে ব্যবহার করে নিজের উদ্দেশ্য হাসিল করতে চেয়েছেন। কোন প্রকার প্রামাণ্য তথ্য উপাত্ত ছাড়া কমিশনার মহোদয়ের বিরুদ্ধে বেনামী চিঠি দুদকসহ শতাধিক দপ্তর ও মিডিয়ায় বিতরণ করে বেনাপোল কাস্টম হাউস ও উচ্চ পদস্থ একজন কর্মকর্তার সম্মানহানি হয়েছে। বেনাপোল পোর্ট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মামুন খান বিষয়টি নিশ্চিত কওে পিবিএ’কে বলেন, আজ সকাল সাড়ে ৯ টায় বেনাপোল কাস্টমসের পক্ষ থেকে মামলা করা হয়। মামলা নং-৩৮।