সোমবার, ১৮ই নভেম্বর, ২০১৯ ইং

শিরোপায় চোখ রেখে সন্ধ্যায় মাঠে নামছে বাংলাদেশ

মুক্তখবর :
নভেম্বর ৭, ২০১৯
news-image

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ০৭ নভেম্বর ২০১৯ (স্পোর্টস ডেস্ক) : তিন ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজের দ্বিতীয়টিতে আজ বৃহস্পতিবার মুখোমুখি হচ্ছে বাংলাদেশ-ভারত। ম্যাচটি বাংলাদেশ দলের জন্য অনেক বড় সুযোগ। কারণ, এই ম্যাচ জিততে পারলেই প্রথমবার ভারতের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টিতে দ্বিপক্ষীয় সিরিজ জয়ের গৌরব অর্জন করবে বাংলাদেশ। রাজকোটের সৌরাষ্ট্র ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন স্টেডিয়ামে ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায়।

সাম্প্রতিক সময়ে বেশ অস্থিরতার মধ্যে কেটেছে বাংলাদেশের ক্রিকেট। দলের ব্যর্থতা তো ছিলই, সেইসঙ্গে খেলোয়াড়দের বেতন-ভাতা নিয়ে আন্দোলন হয়। ভারত সফরের একদিন আগে টি-টোয়েন্টি ও টেস্ট অধিনায়ক সাকিব আল হাসান নিষিদ্ধ হন। সব মিলিয়ে বেশ চাপের মধ্যে থেকেই ভারত সফরে যায় বাংলাদেশ দল।

অবশ্য ভারতে গিয়ে যেন সে পরিস্থিতি পাল্টেছে। চাপের মুখে প্রথম টি-টোয়েন্টিতে দুর্দান্ত জয় তুলে নিয়েছে বাংলাদেশ। প্রথম ম্যাচের জয়ে স্বস্তি ফিরেছে টাইগারদের ড্রেসিংরুমে। দ্বিতীয় ম্যাচের আগে অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহর চোখে সাম্প্রতিক হতাশা নয়, বরং ভারতের মাটিতে প্রথমবার সিরিজ জয়ের স্বপ্ন।

গতকাল বুধবার সংবাদমাধ্যমে মাহমুদউল্লাহ বলেন, ‘সাম্প্রতিক সময়ে বাংলাদেশ ক্রিকেটে যা ঘটেছে, এই মুহূর্তে তা নিয়ে ভাবছি না। আমার ওপর যে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে, তা নিয়েই চিন্তা করছি। কারণ, এই সিরিজটি বাংলাদেশ দলকে উজ্জীবিত রাখতে সাহায্য করবে। তাই আগামীকাল ভারতের বিপক্ষে নিজেদের সেরাটা উজাড় করে দিতে হবে। আমরা জানি, ভারত ঘরের মাঠে অনেক শক্তিশালী দল। তাই আমাদের প্রথম বল থেকেই নজর দিতে হবে।’

এ ছাড়া অধিনায়ক মনে করেন, ‘এটা অনেক বড় একটা সুযোগ আমাদের জন্য, আমাদের ক্রিকেটের জন্য। আমরা প্রথমবার ভারতে একটা দ্বিপক্ষীয় সিরিজ খেলতে এসেছি। যদি আমরা ভালো খেলে সিরিজটা জিততে পারি, তাহলে এটা আমাদের ক্রিকেটের জন্য বড় অর্জন হবে।’

অন্যদিকে ছাড় দিতে রাজি নয় ভারতও। নিজেদের পরিকল্পনা পাল্টে সিরিজে ঘুরে দাঁড়ানোর কথা অকপটে জানিয়ে দিলেন স্বাগতিক অধিনায়ক রোহিত শর্মা।

তিনি বলেন, ‘আমি আমাদের কৌশল বলব না। কিন্তু আমাদের অ্যাপ্রোচে পরিবর্তন থাকবে তা আমি নিশ্চিত করেই বলতে পারি। গত ম্যাচে (দিল্লিতে) আমরা পিচ অনুযায়ী খেলেছিলাম। পিচ যেমন আচরণ করছিল, আমরা সেভাবেই খেলেছিলাম। কিন্তু যদি এখানে (রাজকোট) পিচ ভালো হয়, ব্যাটিং-বোলিং দুই বিভাগেই আমাদের অ্যাপ্রোচ ভিন্ন হবে…এখন পর্যন্ত রাজকোটের পিচ সম্পর্কে যতটুকু জানি তাতে আশা করি এটা দিল্লির চেয়ে ভালো হবে। তাই আমাদের অ্যাপ্রোচও ভিন্ন। কারণ আমরা ঘুরে দাঁড়াতে চাই।’

এবার মাঠের পারফরম্যান্সে কে এগিয়ে যায়, সেটাই দেখার অপেক্ষা। পরিসংখ্যান বলছে, গত পাঁচ ম্যাচে তিনটিতে জিতেছে ভারত, হেরেছে শেষ দুটিতে। আর বাংলাদেশ শেষ পাঁচ টি-টোয়েন্টির চারটিতেই জিতেছে। সেইসঙ্গে গত ম্যাচের আত্মবিশ্বাস তো আছেই।

দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশের একাদশে পরিবর্তন আসার সম্ভাবনা কম। যদিও উইকেট দেখে বাকি সিদ্ধান্ত হবে বলে জানিয়েছেন মাহমুদউল্লাহ।

তিনি বলেন, ‘একাদশ পরিবর্তন নিয়ে চিন্তা নেই, তবুও যখন মাঠে আসব তখন উইকেট দেখে যদি মনে হয়, একাদশ পরিবর্তনের কথা তখন করলেও করতে পারি। তবে আমরা আগের ম্যাচের জয়ের কম্বিনেশনই রাখার চেষ্টা করব।’

অবশ্য এই ম্যাচটি মাঠে গড়ানো নিয়েও আছে প্রবল শঙ্কা। কারণ ম্যাচটিতে বাধা হয়ে দাঁড়াতে পারে ঘূর্ণিঝড় ‘মহা’। গত দু-তিন দিনের আবাহাওয়া বার্তা তেমনটাই বলছে। তবে সবকিছু ছাপিয়ে ভারতের মাটিতে সিরিজ জয়ের স্বপ্ন বাংলাদেশ পূরণ করতে পারে কি না, সেটাই দেখার অপেক্ষা।