বুধবার,১৫ই জুলাই, ২০২০ ইং

শরীরে ১০ লক্ষণে বিপদের শঙ্কা

মুক্তখবর :
জানুয়ারি ২১, ২০২০
news-image

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২১ জানুয়ারি ২০১৯ (স্বাস্থ্য ডেস্ক) : মানব শরীর অনেকটা যন্ত্রের মতো। নানা কাজে নিজেকে যেমন ব্যবহার করা যায়, তেমনি এর যত্ন নেয়া ও সুরক্ষা দেয়া জরুরী। অনেক সময় ছোটখাটো সমস্যাকে আমরা গুরুত্ব দেই না। কিন্তু ছোটখাটো বেশ কিছু সমস্যা রয়েছে যা বড় বিপদের কারণ হতে পারে।

এমন ১০টি সমস্যা হলো-

১. বুকে ব্যথা:
বুকে ব্যথা হওয়ার অনেক কারণ থাকতে পারে। হঠাৎ করে বুকে ব্যথা হলে মনে করা হয় গ্যাসট্রিক। কিন্তু হৃদরোগের কারণে বুকের ব্যথা হতে পারে। ফলে বুকে ব্যথা হলে হৃদরোগের সমস্যা রয়েছে কিনা তা পরীক্ষা করা দরকার।

২. চাপ ছাড়াই ক্লান্তি:
অনেক সময় কাজের চাপে ক্লান্তি ভাব আসতে পারে। কিন্তু কাজের চাপ ছাড়াই যদি ক্লান্তি আসে তাহলে ডাক্তারের কাছে যাওয়া দরকার। থাইরয়েড বা অপুষ্টির কারণে এ সমস্যা হতে পারে।

৩. মাথাব্যথা:
বেশিক্ষণ রোদে থাকলে বা মানসিক চাপে অনেক সময় মাথাব্যথা করতে পারে। এতে চিন্তার কিছু নেই। কিন্তু মাথাব্যথা অন্য কারণেও হতে পারে। পানিশূন্যতা বা পুষ্টিহীনতা থেকে মাথাব্যথা হতে পারে। ফলে মাথাব্যথা হলে ডাক্তার দেখানো প্রয়োজন।

৪. পেটের অসুখ:
মাঝে মধ্যে খাওয়ার সমস্যার কারণে পেটের অসুখে ভোগা মানুষের সংখ্যা কম নয়। কিন্তু যদি দিনে একাধিকবার বা প্রায়ই পেটের অসুখ দেখা দেয় তাহলে ডাক্তারের কাছে যাওয়া জরুরী।

৫. ওজন:
অনেক সময় হঠাৎ করেই ওজন কমে যেতে পারে। এই লক্ষণটিতে বিপদের শঙ্কা রয়েছে। ক্যান্সার, ডায়বেটিস বা ভাইরাসের সংক্রমণ কারণে দ্রুত ওজন কমে যেতে পারে।

৬. আঁচিল ও তিল:
শরীরের দীর্ঘ দিন ধরে যেসব তিল বা আঁচিল থাকে তা সমস্যার কিছু না। কিন্তু হঠাৎ করে তিল বা আঁচিলের সংখ্যা বাড়লে বিপদের শঙ্কা রয়েছে। এজন্য ডাক্তারের কাছে যেতে হবে।

৭. পাতলা চুল:
চুলের ঘনত্ব কমে যাওয়ার কারণ অনুসন্ধান করতে হবে। বিশেষ করে নারীদের ক্ষেত্রে চুলের ঘনত্ব কমে যাওয়াটা ভয়ংকর। পুষ্টিহীনতা বা কোনো অসুখে এমন হতে পারে। এজন্য চিকিৎসকের কাছে যেতে হবে।

৮. নাক ডাকা:
নাক ডাকাকে সব সময় স্বাভাবিক ভাবা ভুল হবে। অনেক সময় হৃদরোগ বা ক্লান্তির কারণে নাক ডাকার সমস্যা হতে পারে। হঠাৎ নাক ডাকা দেখা দিলে ডাক্তারের কাছে যেতে হবে।

৯. ত্বকের সমস্যা:
শরীরে র‌্যাশ, অ্যাজমা বা সংক্রমণ অনেক সময় রোগের বার্তা দেয়। তবে পুষ্টির অভাব বা অ্যালার্জির কারণেও এমনটি হতে পারে। কী কারণে সেটি হচ্ছে তা বের করতে ডাক্তারের কাছে যাওয়া জরুরী।

১০. ঠোঁট ফাটা:
অনেক সময় ঠোঁট ফাটলে আমরা গুরুত্ব দেই না। কিন্তু ঠোঁট ফাটার নির্দিষ্ট কারণ রয়েছে। ভিটামিন বি এর অভাবে এটি হয়ে থাকে। এতে রক্তশূন্যতা দেখা দিতে পারে।