রবিবার,৯ই আগস্ট, ২০২০ ইং

শ্রীপুরে ৪৯ কোটি টাকার সড়ক উন্নয়ন কাজের উদ্বোধন

মুক্তখবর :
জুলাই ৬, ২০২০
news-image

ঢাকা, সোমবার, ০৬ জুলাই ২০২০ (স্টাফ রিপোর্টার): গাজীপুরের শ্রীপুরে ৪৯ কোটি ৩৪ লাখ ৪৫ হাজার ৩৬৪ টাকা ব্যয়ে তিনটি সড়ক উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন করা হয়েছে। সোমবার (৬ জুলাই) বেলা ১১টায় প্রকল্পগুলোর উদ্বোধন করেন গাজীপুর-৩ আসনের এমপি ও জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন সবুজ। স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি) তত্ত্বাবধানে এ প্রকল্পগুলো বাস্তবায়ন করা হবে। শ্রীপুর উপজেলা প্রকৌশলী সৈয়দ আব্দুস সবুর জানান, উদ্বোধন হওয়া প্রকল্পগুলো হলো-১৫ কোটি ৮৪ লাখ ৩৬ হাজার ২১২ টাকা ব্যায়ে শ্রীপুর জিসি থেকে রাজাবাড়ী জিসি পর্যন্ত সড়ক মেরামত ও প্রশস্তকরণ। আগামী ২০২১ সালের এপ্রিল মাসের মধ্যে এ সড়কের উন্নয়ন কাজ শেষ করতে হবে।

৩৩ কোটি ৫০ লাখ ৯ হাজার ১৫২ টাকা ব্যায়ে জৈনাবাজার আরএইচডি নলোয়া বাটাজোর জিসি সড়ক মেরামত ও প্রশস্তকরণ এবং শ্রীপুর উপজেলা পরিষদ থেকে জৈনাবাজার আরএইচডি ভায়া আবদার বাজার সড়ক মেরামত ও প্রশস্তকরণ। ২০২১ সালের জুলাই মাসের মধ্যে এ দুটি সড়ক উন্নয়ন কাজ শেষ করতে হবে। মেসার্স আমজাদ ট্রেডার্স সড়ক উন্নয়ন কাজগুলো সমাপ্ত করবেন। উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধনের সময় উপস্থিত ছিলেন শ্রীপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট শামসুল আলম প্রধান, শ্রীপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শেখ শামসুল আরেফিন, শ্রীপুর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মাহতাব উদ্দিন, শ্রীপুর পৌরসভার মেয়র আনিছুর রহমান, শ্রীপুর উপজেলা প্রকৌশলী সৈয়দ আব্দুস সবুর, তেলিহাটি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুর বাতেন সরকার, শ্রীপুর পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি সিরাজুল ইসলাম, শ্রীপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান বুলবুল, গাজীপুর জেলা আওয়ামীলীগের সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক কফিল উদ্দিন মন্ডল, শ্রীপুর উপজেলা কমিউনিটি পুলিশের সাধারণ সম্পাদক মাসুদ আলম ভাঙ্গী, শ্রীপুর উপজেলা কমিউনিটি পুলিশের সভাপতি সাংবাদিক মাহবুবুর রহমান আকন্দ, সাধারণ সম্পাদক মোশারফ হোসেন দীপুসহ স্থানীয় সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

উদ্বোধনকালে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে এমপি ইকবাল হোসেন সবুজ বলেন, বর্তমান সরকারের আমলে সব উন্নয়নের পাশাপাশি যোগাযোগ ব্যবস্থার বৈপ্লবিক উন্নতি হয়েছে। এ উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে হলে আওয়ামী লীগের বিকল্প নেই। গ্রামীণ অবকাঠামোর উন্নয়ন হলে প্রতিটি এলাকার মানুষের আতœসামাজিক উন্নয়ন ঘটবে। এসব সড়কগুলো নির্মাণ হয়ে গেলে সড়কে চলাচলকারী জনসাধারন ও আশপাশের কৃষক তাদের উৎপাদিত পণ্যগুলো অতি অল্প সময়ে বাজারে নিয়ে ক্রয়-বিক্রয় করতে সুবিধা হবে এবং ন্যায্য মূল্যে পণ্য বিক্রি করে অর্থনৈতিকভাবে স্বচ্ছল হবেন।