সোমবার,৩০শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

অপহরণের এক সপ্তাহ পার হয়ে গেলেও উদ্ধার হয়নি অপহৃত ছাত্রী

মুক্তখবর :
নভেম্বর ২, ২০১৯
news-image

পটুয়াখালী জেলার রাঙ্গাবালী উপজেলায় দশম শ্রেণীর ছাত্রী অপহরণের এক সপ্তাহ পার হয়ে গেলেও অপহৃত স্কুল ছাত্রী এখনও উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ। এমনকি মামলায় অভিযুক্ত সকল আসামিদেরও গ্রেফতারে ব্যার্থ পুলিশ। এমনই অভিযোগ করে হতাশা প্রকাশ করেছেন মামলার বাদী অপহৃত স্কুল ছাত্রীর পিতা বাবর তালুকদার। রাঙ্গাবালী মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণীর ছাত্রী ছোঁয়া আকতার(১৫)গত ২৬শে অক্টোবর অপহরণ হয়েছে বলে জানা যায়। অপহরণের অভিযোগে ২৯ শে অক্টোবর রাঙ্গাবালী থানায় মামলা করেন অপহৃত স্কুলছাত্রীর পিতা বাবর তালুকদার। কিন্তু অপহরনের সাত দিন পার হয়ে গেলেও অপহৃত ছাত্রী ছোঁয়াকে পাওয়া না যাওয়ায় ও অভিযুক্ত আসামিরা গ্রেফতার না হওয়ায় হতাশা ও উৎকণ্ঠায় ভুগছেন অপহৃত ছাত্রীর পরিবার।
হতাশা প্রকাশ পূর্বক অপহৃত ছাত্রীর পিতা বাবর তালুকদার বলেন, আমরা খুব হতাশায় ভুগছি।গত ২৬ অক্টোবর উপজেলার বাহেরচর ঈদগাহ মাঠ সংলগ্ন এলাকা থেকে আমার মেয়ে ছোঁয়া অপহরণ হয়। আমি ঘটনা জানতে পেরে পুলিশকে অবহিত করি এবং থানায় অভিযোগ নিয়ে যাই কিন্তু দুই দিন বিভিন্ন অজুহাতে গড়িমসির পর গত ২৯ অক্টোবর অপহরণের অভিযোগটি রাঙ্গাবালী থানায় মামলা হিসেবে গ্রীহিত হয়। মামলায় বনি আমিন, লিমন খাঁন, সাকন প্যাদা, রোকন প্যাদা, সরোয়ার প্যাদা, আবু রায়হান প্যাদা ও মালেক প্যদাসহ আরোও অজ্ঞাতনামা ৫-৬জনকে আসামি করা হয়।
তিনি আরোও বলেন,মেয়ে অপহরণ হয়েছে এক সপ্তাহ হয়ে গেছে। মামলা করা হলেও আমার মেয়ে এখনও উদ্ধার হয়নি। তাৎক্ষনিক এ ঘটনায় মামলা করতে মেয়ের প্রত্যয়নপত্রের জন্য স্কুলের প্রধান শিক্ষকের সঙ্গে যোগাযোগ করেও তাকে পাইনি। তাই দ্রুত মামলাটি করতে একটু কালক্ষেপণ হয়েছে। তিনি আরও বলেন,মামলার দিনই সাকন প্যাদা নামের এক আসামিকে গ্রেফতার করে পুলিশ।মামলায় গ্রেফতার হওয়া একজন আসামিকে আদালত তিনদিনের রিমান্ড দিলেও অসুস্থতার অজুহাতে তাকে একদিন পরই পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। অন্যান্য আসামিদেরও ধরার তেমন তৎপরতা দেখছি না।
মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়, আসামি বনি আমিন দীর্ঘদিন ধরে স্কুলে আসা-যাওয়ার পথে ছোঁয়াকে কু-প্রস্তাব এবং বিয়ের প্রলোভন দিতো। বিষয়টি স্কুলের প্রধান শিক্ষক ও অভিভাবকসহ অন্যান্য আসামিদের অবহিত করা হয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে বনি আমিন অন্যান্য আসামিদের প্ররোচণায় ছোয়াকে অপহরণের সুযোগ খুঁজে। সর্বশেষ ঘটনার দিন গত ২৬ অক্টোবর সকাল ৯টা ১৫ মিনিটে স্কুলের টেস্ট পরীক্ষায় অংশগ্রহণের উদ্দেশ্যে ছোঁয়া রওনা হলে পথিমধ্যে আসামিদের মদদে বনি আমিন তাকে (ছোঁয়া) জোরপূর্বক অপহরণ করে নিয়ে যায়।
এ বিষয়ে রাঙ্গাবালী থানার ওসি আলী আহম্মেদ জানান, স্কুলছাত্রী ছোঁয়াকে উদ্ধারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। ইতোমধ্যে আমরা একজন আসামিকে গ্রেফতার করেছি। তাকে তিন দিনের জন্য রিমান্ডে আনা হয়েছিল। কিন্তু অসুস্থ হওয়ায় আবার পাঠিয়ে দেওয়া হয়। সুস্থ হওয়ার পরে আবার তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আনা হবে।