বুধবার,২৩শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

১১ দফা দাবিতে রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল শ্রমিকদের প্রতীকী অনশন

মুক্তখবর :
নভেম্বর ২৭, ২০১৯
news-image

ঢাকা, বুধবার, ২৭ নভেম্বর ২০১৯ (স্টাফ রিপোর্টার) : মজুরী কমিশন বাস্তবায়ন ও অবসরপ্রাপ্তদের পিএফ গ্রাচ্যুইটি প্রদানসহ ১১ দফা বাস্তবায়নের দাবিতে প্রতীকী অনশন কর্মসূচি পালন করেছেন খুলনা-যশোর অঞ্চলের রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকলের শ্রমিকরা। বুধবার সকাল আটটায় কারখানার উৎপাদন বন্ধ করে পাটকলের প্রায় অর্ধলাখ শ্রমিক ছয়দিনের আন্দোলনের দ্বিতীয়দিনে এ কর্মসূচি পালন করেন।

এর আগে, গত ১৭ নভেম্বর পাটকল১১ দফা দাবি বাস্তবায়নের দাবিতে ৬ দিনের কর্মসূচি ঘোষণা করেন রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল সিবিএ-নন সিবিএ সংগ্রাম পরিষদের নেতার। দাবিগুলোর মধ্যে শ্রমিকদের মজুরী কমিশন বাস্তবায়ন, পাবলিক প্রাইভেট পার্টনারশিপ (পিপিপি) বাতিল, অবসরপ্রাপ্ত শ্রমিক, কর্মচারী ও কর্মকর্তাদের পিএফ গ্রাচ্যুইটির টাকা প্রদান, শ্রমিকদের সাপ্তাহিক মজুরী নিয়মিত পরিশোধ, পাট মৌসুমে পাট ক্রয়ের অর্থ বরাদ্দ অন্যতম।দ।

এ কর্মসূচির দ্বিতীয়দিনে বুধবার ক্রিসেন্ট, প্লাটিনাম, দৌলতপুর, খালিশপুর, দিঘলিয়া, আলীম, ইর্স্টাণ, কার্পেটিং ও জেজেআই জুটমিলের শ্রমিকরা নিজ নিজ কর্মস্থলে না যেয়ে স্ব-স্ব মিল গেটে সমবেত হয়। সেখানে শ্রমিকরা পৃথক পৃথকভাবে মূল ফটকের সামনে অনশন কর্মসূচিতে অংশ নেয়। এই কর্মসূচিচলাকালে পৃথক পৃথকভাবে মিল গেটে এক সমাবেশে অনুষ্ঠিত হয়।

শ্রমিক সমাবেশে বক্তৃতা করেন রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল সিবিএ-নন সিবিএ সংগ্রাম পরিষদের আহ্বায়ক আব্দুল হামিদ সরদার, যুগ্ম আহ্বায়ক মো. মুরাদ হোসেন, প্লাটিনাম মিলের সিবিএ সভাপতি শাহানা সারমিন, সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন কবির খান, খালিশপুর জুটমিল সিবিএর সভাপতি আবু দাউদ দ্বীন মোহাম্মদ, সাধারণ সম্পাদক ইব্রাহীম শেখসহ সিবিএ-নন সিবিএ নেতারা। সমাবেশে বক্তারা অবিলম্বে শ্রমিকদের নয় দফা বাস্তবায়নের জন্য বিজেএমসি কর্তৃপক্ষের কাছে জোর দাবি জানান।