বৃহস্পতিবার,২৫শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

ধর্ষণে অন্তঃসত্ত্বা কিশোরী, ওষুধে গর্ভপাত

মুক্তখবর :
জানুয়ারি ২, ২০২০
news-image

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ০২ জানুয়ারি ২০১৯ (নিজস্ব প্রতিনিধি) : ঝালকাঠির কাঠালিয়া উপজেলায় এক কিশোরী (১২) ধর্ষণে অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার পর ওষুধের মাধ্যমে গর্ভপাত ঘটানোর অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় ধর্ষিত কিশোরীর মা বাদী হয়ে কাঠালিয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। মামলার পর এ ঘটনায় অভিযুক্ত মো. রফিককে এখনো গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ। রফিকের বাড়ি পিরোজপুরের ভান্ডারিয়া উপজেলায়। কিশোরীর মায়ের অভিযোগ, ‘রফিক প্রায়ই আমার মেয়েকে একা পেয়ে ধর্ষণ করতো। বিষয়টি আমাদের না জানাতে রফিক হুমকি-ধামকি দেয়। ভয়ে আমার মেয়ে কিছুই জানায়নি। একপর্যায়ে আমার মেয়ে চার মাসের গর্ভবতী হয়ে পড়ে। এ ঘটনা রফিক জেনে সোমবার আমার মেয়েকে জোরপূর্বক ওষুধ সেবনে বাধ্য করে। গত মঙ্গলবার সকালে মেয়ে আমাদের জানালে আমি থানায় গিয়ে রফিককে আসামি করে মামলা দায়ের করি।’এর মধ্যেই মেয়ের রক্তক্ষরণ শুরু হলে তাকে প্রথমে ঝালকাঠি হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখান থেকে শেরেবাংলা মেডিকেলে নেওয়ার সময় মৃত সন্তান প্রসব করে। এরপর মেয়েকে শেরেবাংলা মেডিকেলে ভর্তি করা হয় বলেও জানান তার মা। কাঠালিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এনামুল হক বলেন, ‘আসামি রফিককে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। এছাড়া নির্যাতিতার জবানবন্দি রেকর্ড করার জন্য মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা উপপরিদর্শক (এসআই) আব্দুল হামিদকে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। মৃত বাচ্চাটির ময়নাতদন্ত করা হবে। আসামিকে গ্রেপ্তারের পর তার ডিএনএ পরীক্ষা করা হবে।‘