শনিবার,১৬ই অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

টিকে গেলেন ট্রাম্প

মুক্তখবর :
ফেব্রুয়ারি ৬, ২০২০
news-image

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ০৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ (মুক্তখবর ডেস্ক) : অবশেষে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের তার বিরুদ্ধে আনা দুটি অভিযোগ থেকে মুক্ত হয়েছেন। যুক্তরাষ্ট্রের স্থানীয় সময় বুধবার (০৫ ফেব্রুয়ারি) কংগ্রেসের উচ্চকক্ষ সিনেটে চূড়ান্ত বিচারে ট্রাম্পের পক্ষে রায় যায়। এর ফলে অভিশংসন থেকে অব্যাহতি পান প্রেসিডেন্ট। সেইসঙ্গে ক্ষমতা থেকেও অপসারিত হচ্ছেন না তিনি। যুক্তরাষ্ট্রের রাজধানী ওয়াশিংটন ডিসিতে স্থানীয় সময় বুধবার বিকেলে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের অভিশংসন নিয়ে ভোটাভুটি হয় সিনেটে। এতে ট্রাম্পের বিরুদ্ধে দুটি অভিযোগের একটিতে ৫২-৪৮ ভোট এবং অন্যটিতে ৫৩-৪৭ ভোটে তার পক্ষে রায় দেন সিনেটররা। চূড়ান্ত এ রায়ের পর ট্রাম্পের রানিংমেট ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স অভিশংসনের পুরো প্রক্রিয়া ও তদন্তকে লজ্জাজনক বলে মন্তব্য করেন। মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স বলেন, বহুদিন ধরে ডেমোক্র্যটরা প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে নানান অভিযোগ তুলছিলেন। তাদের অভিশংসন প্রক্রিয়াটা লজ্জার হলেও শেষ পর্যন্ত তারা ব্যর্থ হয়েছে। তারা বুঝেছে যে, ডোনাল্ড ট্রাম্প ফের নির্বাচনে দাঁড়ালে তাদের কোনো প্রার্থীই জয় পাবে না। এটা বুঝেই তারা অসত্য অভিযোগ সাজিয়েছে। আমরা নভেম্বরের ভোটে তার জবাব দেবো। আমরা আবারও জিতে হোয়াইট হাউজে যাবো। আজকের এ জয় আমাদের সব রিপাবলিক নেতা-কর্মী-সমর্থকদের জয়। কংগ্রেসের নিম্নকক্ষ প্রতিনিধি পরিষদের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসি এক তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় বলেন, রিপাবলিকানরা অনাচারকে সমর্থন করেছে।কংগ্রেসে নিম্নকক্ষের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসি বলেন, রিপাবলিকান সিনেটর মিট রমনির বক্তব্যে আমরা অভিভূত হয়েছি। আপাতত এর বেশি কিছু বলছি না, বাকিটা পরে জানাবো। ভোটাভুটিতে দুটি অভিযোগের একটিতে ট্রাম্পের বিপক্ষে তারই দলের প্রভাবশালী সিনেটর রিপাবলিকান মিট রমনি ভোট দেন। এদিকে এ রায়ের পর বরাবরের মতো টুইট বার্তায় প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প একে ‌’দেশের বিজয়’ বলে উল্লেখ করেন। তিনি জানান, স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার দুপুরে অভিশংসন নিয়ে আনুষ্ঠানিক বক্তব্য দেবেন তিনি। ট্রাম্পের বিরুদ্ধে ক্ষমতার অপব্যবহার ও কংগ্রেসের কার্যক্রমে বাধা দেয়ার অভিযোগ আনা হয়েছিল। গেলো বছর ১৮ ডিসেম্বর, কংগ্রেসে ডেমোক্র্যাট সমর্থিত নিম্নকক্ষ প্রতিনিধি পরিষদে অভিশংসিত হয়েছিলেন প্রেসিডেন্ট ডেনাল্ড ট্রাম্প। কিন্তু উচ্চকক্ষ সিনেটে সংখ্যাগরিষ্ঠ ট্রাম্পের দল রিপাবলিকান। তাই সিনেটে যে তিনি চূড়ান্তভাবে অভিযোগ থেকে অব্যাহতি পাবেন এটা অনেকটা জানাই ছিল।