শুক্রবার,৫ই মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

কীভাবে তৈরি করবেন যাদুকরী ‘ডিটক্স ওয়াটার’

মুক্তখবর :
ফেব্রুয়ারি ১৬, ২০২০
news-image

ঢাকা, রোববার, ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০ (লাইফস্টাইল ডেস্ক) : ওজন কমানোর ক্ষেত্রে ডায়েটিংয়ের পাশাপাশি ম্যাজিক দেখাতে পারে ‘ডিটক্স ওয়াটার’। ওজন কমানো ছাড়াও ডিটক্স ওয়াটার আপনার ত্বক হয়ে উঠবে ঝলমলে, ঢেকে যাবে বলিরেখা, পেট ফাঁপবে না, অ্যাসিডিটির সমস্যা থেকে মুক্তি পাবেন, কমে যাবে হজমের সমস্যা। ডিটক্স ওয়াটার তৈরি তেমন জটিল কিছু নয়, মৌসুমি ফলের কয়েকটি টুকরো ফেলে দিন কাচের জগ বা বোতলে, বোতলটা পুরো ভর্তি করে নিন পানি দিয়ে। ইচ্ছে হলে এর মধ্যে কিছু পুদিনা পাতাও ফেলে দিতে পারেন। পানিটা এবার ফ্রিজে রেখে দিন। সারারাত থাকলে ফলের ফ্লেভারটা পানিতে মিশে যাবে। তারপর পানিটা ছেঁকে পান করতে পারেন, ফলসমেত খেলেও কোনও সমস্যা নেই৷ ২-৩ দিনের মধ্যে এই পানিটা পুরো খেয়ে শেষ করে ফেলতে হবে।

পছন্দের যে কোনো ফল দিয়েই তৈরি করতে পারেন ডিটক্স ওয়াটার। কমলালেবু, ব্লুবেরি, স্ট্রবেরি, রাস্পবেরি, পাতিলেবু, আনারস, তরমুজ, আদা, পুদিনা, আপেল, কিউয়ি, আঙুর, শসা—যা ইচ্ছে ব্যবহার করতে পারেন, কোনও অসুবিধে নেই। তবে ফলের খোসা ছাড়ানো হয় না ডিটক্স ওয়াটার তৈরির সময়ে, তাই ব্যবহারের আগে অতি অবশ্যই খুব ভালো করে ধুয়ে নেবেন।

দেখে নিন কয়েকটি মজার ডিটক্স ওয়াটার তৈরির পদ্ধতি:

১. আপেল আর দারচিনি ডিটক্স ওয়াটার:
পাতলা পাতলা করে একটি আপেল কেটে নিন। সেই সঙ্গে নিন দেড় ইঞ্চি লম্বামাপের দারচিনির টুকরো। আপনার যদি চড়া ফ্লেভার পছন্দ হয়, তা হলে পুরোটা আপেল আর দারচিনি পানিতে দিন৷ ৫০০ মিলি পানিতে ৩-৪ টুকরো আপেল আর এক টুকরো দারচিনি দিলে হালকা একটা ফ্লেভার পাবেন।

২. পাতিলেবু, আদা, পুদিনা ডিটক্স ওয়াটার:
এক বোতল পানিতে অর্ধেকটা পাতিলেবুর রস চিপে দিন। সেই সঙ্গে আদা আর পাতিলেবুর পাতলা স্লাইস যোগ করুন। খেয়াল করে ব্যবহার করুন তাজা আদা। কিছু পুদিনা পাতাও যোগ করে দিতে পারেন৷ সকালবেলা খালি পেটে এই পানি খেলেও খুব ভালো ফল পাবেন, আপনার হজম সংক্রান্ত সমস্যাও দূর করতে সাহায্য করবে এই ডিটক্স ওয়াটার।

৩. কমলালেবু আর ব্লুবেরি ডিটক্স ওয়াটার:
তাজা ব্লুবেরি না পেলে কালো আঙুরও ব্যবহার করতে পারেন৷ এক লিটার পানির জন্য দু’টি কমলালেবু পাতলা স্লাইস করে কেটে নিন। কমলার কোয়াও ব্যবহার করা যায়। সেই সঙ্গে দিন এক কাপ ব্লুবেরি বা আঙুর।

৪. কমলালেবু, বাতাবিলেবু ডিটক্স ওয়াটার:
দু’টি কমলালেবু কেটে নিন বড়ো বড়ো টুকরো করে অর্ধেকটা বাতাবি কেটে নিন। তার পর এক লিটার পানির মধ্যে ফেলে সারা রাত ফ্রিজে রেখে দিন। বাতাবিলেবু টক হলে এমনি খাওয়া যায় না সাধারণত। পানির মধ্যে দিয়ে খেলে টকভাব চলে যাবে, পুষ্টিগুণটাও পাবেন।

৫. শসা, পাতিলেবু আর পুদিনা ডিটক্স ওয়াটার:
একটা শসা কেটে নিন, আগে চেখে দেখে নেবেন শসাটা তেতো কিনা। সঙ্গে দিন পাতিলেবুর স্লাইস আর পুদিনা৷ ঠান্ডা করে পান করুন, দারুণ ফ্রেশ লাগবে।

৬. তরমুজ, কিউয়ি, স্ট্রবেরি ডিটক্স ওয়াটার:
এক কাপ তরমুজের টুকরো, গোটা তিনেক মাঝারি আকারের স্ট্রবেরি, একটা কিউয়ি টুকরো করে কেটে নিন। সামান্য থেঁতলে ফেলে দিন এক লিটার পানির মধ্যে৷ সঙ্গে পুদিনা বা পাতিলেবুও দিতে পারেন ইচ্ছে করলে।

গোটা ফলের কিন্তু কোনও বিকল্প নেই:
আমরা তো আর ফল শুধু স্বাদের জন্য খাই না, তাই মিনারেল, ভিটামিন, ফাইবারও আমাদের শরীরের নানা কাজে লাগে। তাই ডিটক্স ওয়াটারের বোতল নিয়ে ঘুরছেন বলে খাদ্যতালিকা থেকে তাজা গোটা ফল একেবারে ছেঁটে ফেলবেন না। গোটা ফল চিবিয়ে খাওয়ার কোনও বিকল্প নেই। তবে ফলের রস বা নরম পানীয়ের চেয়ে ডিটক্স ওয়াটার নিশ্চিতভাবেই অনেক বেশি স্বাস্থ্যকর।