শনিবার,২৭শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

করোনাভাইরাসে ভীত না হয়ে মোকাবেলার মনোভাব ও সাহস নিয়ে সামনের দিকে এগিয়ে যেতে হবে: মেয়র

মুক্তখবর :
মে ১২, ২০২০
news-image

করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে গৃহীত লকডাউন পরিস্থিতিতে মানুষের কষ্টের কথা উল্লেখ করে চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক ও সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেছেন, সরকার পর্যায়ক্রমে কিছু কিছু সেক্টর খুলে দেয়ার চেষ্টা করছে। যেহেতু এটি রোজার মাস, কিছু জীবন-জীবিকার ব্যবস্থা যাতে মানুষ করতে পারে সেই ব্যবস্থাই নেয়া হচ্ছে। তিনি বলেন, দারিদ্র্যমুক্ত ও সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ার অগ্রযাত্রায় করোনাভাইরাস এক বিরাট ধাক্কা হয়ে এসেছে। তবে এতে ভীত না হয়ে মোকাবেলার মনোভাব ও সাহস নিয়ে সামনের দিকে এগিয়ে যেতে হবে। মেয়র বলেন, দেশের এই রকম অবস্থা থাকবে না, পরিবর্তন আসবে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দূরদর্শী নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছিল অর্থনৈতিকভাবে সমৃদ্ধির পথে। এই করোনাভাইরাস আমাদের সেই যাত্রা অনেকটা ব্যাহত করে দিয়েছে। কিন্তু তারপরও আমরা প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে আশাবাদী। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাংলাদেশকে ক্ষুধামুক্ত, দারিদ্র্যমুক্ত ‘সোনার বাংলাদেশ’ হিসেবে গড়ে তুলতে চেয়েছিলেন উল্লেখ করে মেয়র বলেন, তাঁর স্বপ্নের সফলতাও আমরা এনেছিলাম। খুব শিগগিরই বাংলাদেশ দারিদ্র্যমুক্ত হওয়ার সম্ভাবনার দ্বার উম্মুক্ত হয়েছিল। সরকারের লক্ষ্য ছিল ২০২০ থেকে ২০২১ এর মধ্যেই বাংলাদেশ দারিদ্র্যমুক্ত হওয়া। এই করোনাভাইরাসের কারণে সেই যাত্রা ব্যাহত। নগরবাসীকে ভাইরাস সংক্রমণ থেকে সুরক্ষায় স্বাস্থ্য বিষয়ক নির্দেশনা মেনে চলার পরামর্শে মেয়র বলেন শারীরিক অসুস্থতায় মানসিকভাবে শক্ত থাকতে হবে। শারিরিকভাবে অসুস্থ হলে মনে সাহস রাখতে হবে। কারণ শুধু ডাক্তার বা ওষুধ দিয়েই রোগ ভালো হবে না। মনের আত্মবিশ্বাস থেকেও অনেকটা সুস্থ হওয়া যায়। করোনাভাইরাস নিয়ে ভীত হয়ে কারো সাথে অমানবিক আচরণ না করারও আহ্বান মেয়রের। তিনি বলেন, অনেক সময় পরিবারের একজন সদস্য যখন অসুস্থ হয়ে পড়ে তার কী অসুখ হলো না জেনেই তাকে অবহেলা করে দূরে ঠেলে দেওয়া ঠিক হবে না। আমাদের উচিত নিজেকে সুরক্ষিত রেখে আক্রান্তদের সেবা করা যায়। গতকাল ৮ নং শুলকবহর ও ১৬ চকবাজার ওয়ার্ডে স্থানীয় ইউনিট আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীদের মাঝে উপহার সামগ্রী বিতরণকালে মেয়র এসব কথা বলেন। অনুষ্ঠানে মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী বলেন, করোনা মহামারীতে সরকারের সময়োচিত পদক্ষেপের কারণে অন্যান্য দেশের তুলনায় বাংলাদেশের পরিস্থিতি অনেক ভালো। সরকারের সয়োচিত নানান পদক্ষেপের কারনে অনেক দেশের তুলনায় বাংলাদেশের পরিস্থিতি অনেক ভালো। তবে সংক্রমনের চরিত্র দেখে সুস্পষ্ট বোঝা যাচ্ছে, মে মাস হবে বাংলাদেশের জন্য খুবই ক্রিটিক্যাল। সেকারনে আমাদের স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ও বিশ^ স্বাস্থ্য সংস্থা যে নির্দেশনা দিচ্ছে সেগুলো মেনে চলতে হবে, তাহলে সুরক্ষিত থাকা যাবে । উপহার সামগ্রী বিতরণ কালে চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নোমান আল মাহমুদ, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক শফিকুল ইসলাম ফারুক, কৃষি সম্পাদক হাজী আহমেদুর রহমান সিদ্দিকী, ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ সম্পাদক লায়ন মোহাম্মদ হোসেন, কার্য নির্বাহী সদস্য বখতেয়ার উদ্দিন খান, চকবাজার থানা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ্ব সাহাব উদ্দিন আহমদ, সাধারণ সম্পাদক মো. আনছারুল হক, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের আলহাজ্ব আবদুর রহমান, মোজাহেরুল ইসলাম চৌধুরী, কাউন্সিলর সাইয়্যেদ গোলাম হায়দার মিন্টু, মোহাম্মদ আতিকুর রহমান, শেখ সোহরাওয়ার্দ্দী উপস্থিত ছিলেন।