শনিবার,২৪শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

ভারতে করোনার পরিস্থিতির আরও অবনতি

মুক্তখবর :
জুন ১৪, ২০২০
news-image

ভারতে করোনা সংক্রমণ দিন দিন বেড়েই চলেছে। শেষ ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে করোনা আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছে আরও ১১ হাজার ৯২৯ জন, যা এখন পর্যন্ত একদিনে আক্রান্তের হিসাবে সর্বোচ্চ। নতুন আক্রান্তের জেরে দেশটিতে মোট করোনা রোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩ লাখ ২০ হাজার ৯২২ জন।

শুধু আক্রান্ত নয়, দেশটিতে লাফিয়ে বাড়ছে মৃতের সংখ্যাও। শেষ ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে ৩১১ জনের। মোট আক্রান্তের মধ্যে অ্যাক্টিভ কেস রয়েছে ১ লাখ ৪৯ হাজার ৩৪৮টি। সুস্থ মানুষের সংখ্যা ১ লাখ ৬২ হাজার ৩৭৯ জন। মোট মৃত্যু হয়েছে ৯ হাজার ১৯৫ জনের।
ইতোমধ্যে মহারাষ্ট্র, তামিলনাড়ু, দিল্লি, গুজরাট, উত্তর প্রদেশে আগামী দুইমাসে অবস্থা আরও খারাপ হতে পারে বলে মনে করছে সরকার। অবস্থা এতটাই খারাপ যে জুন থেকে আগস্টের মধ্যে অন্তত আইসিইউ বেড ও ভেন্টিলেটর কম পড়তে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। এই পরিস্থিতি হয়ে পড়েছে ভারত।

জানা গেছে, ভারতের পাঁচটি শহরে পরিস্থিতি সবচেয়ে ভয়ঙ্কর ৷ এই তালিকায় এক নম্বরে রয়েছে দেশটির বাণিজ্য নগরী মুম্বাই ৷

ইতোমধ্যে মুম্বাইয়ের স্বাস্থ্য পরিসেবার ওপর প্রবল চাপ তৈরি হয়েছে ৷ এই মহানগরীর ৯৯ শতাংশ আইসিইউ ভর্তি হয়ে গেছে৷ পাশাপাশি ৯৪ শতাংশ ভেন্টিলেটর ইতোমধ্যেই ব্যবহৃত হচ্ছে ৷ বৃহন্মুম্বাই মহানগর পালিকা (BMC) করোনা মহামারীর ওপর একটি পরিসংখ্যান দিয়েছে ৷ তাতে জানা যায়, মুম্বাইইতে মোট আইসিইউ বেডের আর ১৪টি মাত্র খালি আছে ৷ বাকিগুলো ইতোমধ্যে ব্যবহৃত হচ্ছে।

ভেন্টিলেটরের অবস্থাও অনেকটাই এরকম ৷ সারা শহরে মোট ৫৩০টি ভেন্টিলেটর মেশিন ছিল৷ যার ৪৯৭টি এই মুহূর্তে ব্যবহার হচ্ছে ৷ ৩৩টি এখনও খালি রয়েছে ৷

এদিকে, মুম্বাইতে অক্সিজেন বেড রয়েছে ৫২৬০টি ৷ যার মধ্য ৩৯৮৬টি অর্থাৎ ৭৬ শতাংশ বেড ব্যবহার হচ্ছে৷ খালি অক্সিজেন বেডের সংখ্যা ১২৭৪টি ৷ অ্যাডিশনাল মিউনিসিপ্যাল কমিশনার অশ্বিনী ভিড় টুইট করে এসব তথ্য জানিয়েছেন ৷ সূত্র: কলকাতা২৪, নিউজ এইটটিন