সোমবার,১০ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

বান্দরবানে একই পরিবারের ১৬ সদস্য করোনায় আক্রান্ত

মুক্তখবর :
জুন ২০, ২০২০
news-image

ঢাকা, শনিবার, ২০ জুন ২০২০ (নিজস্ব প্রতিনিধি): বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদ সদস্য লক্ষ্মীপদ দাশের পরিবারের ১৬ জনসহ বান্দরবানে নতুন আরো ২৪ জন করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে। শুক্রবার (১৯ জুন) রাতে কক্সবাজার ল্যাবে পরীক্ষার পর তাদের করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়। প্রথম পর্যায়ে এই পরিবারে ৪ জন শনাক্ত হয় এবং পরর্বতীতে একই পরিবারের আরো কয়েকজন আক্রান্ত হয়ে মোট ১৬ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছে।

বান্দরবান সিভিল সার্জন ডা. অং সুই প্রু মারমা এ তথ্য নিশ্চিত করেন। তিনি জানান, বান্দরবান জেলার সম্প্রতি ৮০টি নমুনা পরীক্ষায় ১৯ জুনের রির্পোটে বান্দরবানে ২৪ জনের করোনা শনাক্ত হয়। বর্তমানে বান্দরবান জেলায় মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১৬৩ জন।

বান্দরবান জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ জানায়, শুক্রবার রাতে বান্দরবান জেলায় নতুন ২৪ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে বান্দরবান সদরে ২৩ জন এবং ১ জন নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার। সদরের আক্রান্ত ২৩ জনের মধ্যে পার্বত্য জেলা পরিষদ সদস্য লক্ষ্মীপদ দাশের পরিবারের সদস্যরা রয়েছে। বাকিরা পৌরসভার বিভিন্ন এলাকার বাসিন্দা বলে জানা গেছে।

অন্যদিকে, নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার সাবেক সদর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান তসলিম ইকবাল করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়েছেন। এ নিয়ে বান্দরবান জেলায় মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১৬৩ জন, তবে এর মধ্যে ৩৭ জন সুস্থ হয়ে গেছে। বাকিরা হাসপাতালে ও বাসায় আইসোলেশনে রয়েছে।

বান্দরবান সিভিল সার্জন ডা. অং সুই প্রু মারমা বলেন, বান্দরবানে ১৮ জুন ২৯ জনের পরে ১৯ জুন ২৪ জন করোনা আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে। এটি আমাদের জন্য খুবই এলার্মিং। অসচেতনতার জন্য সংক্রমণের হার দিন দিন বাড়ছে। এরমধ্যে একটি যৌথ পরিবারের ১৬ জন সদস্য রয়েছে। তাই আমাদের সকলকে সচেতন হতে হবে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে।

বান্দরবানের সিভিল সার্জন ডা: অং সুই প্রু মারমা আরো জানান, এপর্যন্ত বান্দরবানে নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে ২ হাজার ৮ জনের, তার মধ্যে রির্পোট মিলেছে ১ হাজার ৩১৭ জনের, এদের মধ্যে ১৬৩ জনের শরীরে করোনা পজিটিভ পাওয়া গেছে। তিনি আরো জানান, জেলায় করোনার উপসর্গ নিয়ে একজনের মৃত্যু হয়েছে এবং তার নমুনা পরীক্ষার ফলাফল পজিটিভ পাওয়া গেছে।

প্রসঙ্গত, বান্দরবানে দিন দিন করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়ায় গত ১০ জুন বান্দরবান সদর ও রুমা উপজেলাকে রেড জোন ঘোষণা করে দুই উপজেলাকে লকডাউন করে দিয়েছে বান্দরবান জেলা প্রশাসন।