সোমবার,১০ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

নীলফামারীতে কলা চাষে আশাবাদী কৃষকেরা

মুক্তখবর :
সেপ্টেম্বর ৩, ২০২০
news-image

মোঃ নাঈম শাহ্: নীলফামারীতে এবার কলা চাষ ভালো হওয়ায় লাভবান হওয়ার আশা করছেন জেলার কৃষকেরা। সূত্রমতে এবার জেলায় বিভিন্ন জাতের কলা চাষ হয়েছে ১০৩২ হেক্টর জমিতে। এর মধ্যে মালভোগ কলার চাহিদা যেমন বেশি সে হারে এবার মালভোক কলা চাষের পরিমান অনেক বেশী। এ কলার চাহিদা অনুযায়ী এবারে ফলন ভালো হওয়ায় কলা চাষে এবার লাভের আশা দেখছে কৃষক। জেলার চাহিদা মিটিয়ে দেশের বিভিন্ন জেলায় কলা নিয়ে যান এই এলাকার ব্যবসায়ীরা। সদরের লক্ষীচাপ ইউনিয়নের কৃষক হারুন অর রশীদ বলেন, আমি ৫ বিঘা জমিতে এবার মালভোগ কলা চাষ করেছি। প্রতি বিঘা (৩০ শতাংশে) আমার সার, কীটনাশক, চাড়া, মুজুরীসহ যাবতীয় খরচ হয়েছে ২০ হাজার টাকা। সেখানে আমার বিক্রি হবে প্রায় ৮০ হাজার টাকা। আমার ৫ বিঘা জমিতে মোট লাভ হবে আমার প্রায় ৩ লক্ষ টাকা। এই জেলার কলা ঢাকা সহ সারা দেশের ব্যবসায়ীরা এসে কলা নিয়ে যান। লাভ বেশী হওয়ায় আমি সারা বছর কলা চাষ করে থাকি। ডোমার উপজেলার কলা চাষী আব্দুর রহিমের সাথে কথা হলে তিনি বলেন, আমি জমি বর্গা নিয়ে এবার ৪ বিঘা জমিতে কলা চাষ করেছি। আর ১ মাস পর কলা বিক্রি করা যাবে। কলা পাকার পূর্বেই আমার ৪ বিঘা জমির কলা ৩ লক্ষ ২০ হাজার টাকা দাম করছে ফরিয়া ব্যবসায়ীরা। আমার ৪ বিঘা জমিতে যাবতীয় খরচ হয়েছে ৮০ হাজার টাকা। এখন বিক্রি করলে আমি প্রায় ২ লক্ষ ৪০ হাজার টাকা লাভ গুনতে পারব। এ বিষয়ে সদরের তরনীবাড়ী ব্লকের কৃষি উপ-সহকারী কর্মকর্তা পার্থ প্রতিম রায় জানান, কলা চাষে আমরা মাঠ পর্যায়ে কৃষকদের কলা চাষে উদ্বুদ্ধ করছি। যারা কলা চাষ করছে তাদের জমিতে গিয়ে সব সময় দেখাশোনা করছি এবং কলা চাষে যাবতীয় পরামর্শ দিয়ে যাচ্ছি। এ বিষয়ে জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের কৃষিবিদ ওবায়দুর রহমান মন্ডল বলেন, নীলফামারীতে এবার কলার বাম্পার ফলন হয়েছে। উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তারা কৃষকের কলা চাষের জমিতে সার্বক্ষনিক গিয়ে খোঁজ খবর নিয়ে পরামর্শ দেন। কলা চাষে কৃষকের অনেক টাকা আয় হবে বলে জানান তিনি।