বৃহস্পতিবার,৬ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

সরকারি রাস্তা কাউকে দখল করে রাখতে দেওয়া হবে না: ডিএনসিসি মেয়র

মুক্তখবর :
সেপ্টেম্বর ৭, ২০২০
news-image

ঢাকা, সোমবার, ০৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ (স্টাফ রিপোর্টার): সোমবার ডিএনসিসির মেয়র আতিকুল ইসলামের নেতৃত্বে ফুটপাত দখলমুক্ত অভিযানে এঘটনা ঘটে। শুরুতে গুলশানের ৮৬ নম্বর সড়কে যান মেয়র। সেখানে একটি নির্মাণাধীন ভবনের সামনে রডসহ নির্মাণসামগ্রী রাখা হয়েছিল ফুটপাতে। দায়িত্বশীল কাউকে না পেয়ে রডগুলো জব্দ করা হয়। পরে তা নিলামে তোলেন ডিএনসিসির প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা আবদুল হামিদ মিয়া। এসময় নির্মাতা প্রতিষ্ঠানের প্রকৌশলী পরিচয় দেওয়া এক ব্যক্তির কাছে ফুটপাত দখল করে মালামাল রাখার কারণ জানতে চাইলে তিনি কোনো জবাব দিতে পারেননি। নিলামে পাঁচ জন অংশ নেন, যাদের মধ্যে মাহমুদ মোল্লা নামে একজন সর্বোচ্চ দামে ৪৯ হাজার টাকায় রডগুলো ও রড কাটার মেশিন কিনে নেন। প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা সাংবাদিকদের বলেন, “আমরা বার বার সর্তক করার পরেও কেউ পাত্তা দেয়নি। তাই এগুলো নিলামে দেওয়া হয়েছে। এখন এসব সরকারি মাল। যিনি নিলামে কিনেছেন তিনি ছাড়া কেউ ধরতে পারবেন না।“ পরে গুলশানের ৬৭ নম্বর সড়কে যান মেয়র আতিকুল ইসলাম। ৯ নম্বর বাড়িতে নির্মাণাধীন ভবনের সামনে রাখা কয়েক টন রড জব্দ করা হয়। ৬ লাখ ৫৫ হাজার টাকায় এসব রড কিনে নেন একজন। এ সময় নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ইনস্টার লিমিটেডের মহাব্যবস্থাপক মেজবাউল হাসানকেও দেড় লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। এ সময় মেয়র আতিকুল বলেন, সরকারি রাস্তা কাউকে দখল করে রাখতে দেওয়া হবে না। প্রতি সপ্তাহে একদিন রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় এ অভিযান চলবে। এই অভিযানকে রাস্তা ও ফুটপাত দখলকারীদের প্রতি ‘কঠোর বার্তা’ হিসেবে তুলে ধরে তিনি বলেন, “তারা এত বড় বড় নির্মাতা প্রতিষ্ঠান। কিন্তু জনগণের রাস্তা ও ফুটপাত দখল করে রেখেছে। অনেকবার বলার পরও তারা কানে তোলেনি। এজন্য এই অভিযান চালানো হয়েছে। “এটা চলবে। যেখানেই রাস্তা ও ফুটপাতে নির্মাণ সামগ্রী পাওয়া যাবে। জব্দ করে নিলামে তোলা হবে।“