মঙ্গলবার,২২শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা, গ্রেফতার

মুক্তখবর :
সেপ্টেম্বর ১৬, ২০২০
news-image

ঢাকা, বুধবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২০ (নিজস্ব প্রতিনিধি): লোহাগাড়ার পদুয়া ৪ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা এক বিধবা নারীকে ধর্ষণের অভিযোগে স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) সদস্য মো. আনোয়ার হোসেনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়েছে।  লোহাগাড়া থানা পুলিশ নগরের চান্দগাঁও থানার সহায়তায় তাকে চান্দগাঁও এলাকা থেকে আটক করেছে। আটক ইউপি সদস্য মো. আনোয়ার হোসেনকে চান্দগাঁও থানা হেফাজত থেকে লোহাগাড়া থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। লোহাগাড়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. রাশেদুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। রাশেদুল ইসলাম বলেন, মঙ্গলবার রাত ১০টার দিকে ভুক্তভোগী নারী থানায় মামলা দায়ের করেন। এরপর সিএমপির চান্দগাঁও থানার সহায়তায় অভিযুক্ত মো. আনোয়ার হোসেনকে আটক করা হয়। তাকে লোহাগাড়া থানায় নিয়ে আসতে একটি টিম চান্দগাঁও থানায় পাঠানো হয়। চান্দগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আতাউর রহমান খন্দকার বলেন, মো. আনোয়ার হোসেন নামে এক আসামিকে গ্রেফতারে রিকুইজিশন দিয়েছিল লোহাগাড়া থানা। রাত ১টার দিকে তাকে আটক করা হয়েছে। লোহাগাড়া থানা পুলিশের কাছে তাকে হস্তান্তর করা হয়েছে। পদুয়া এলাকার এক বিধবা নারীকে দীর্ঘদিন ধরে হয়রানি করে আসছিলেন পদুয়া ৪ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মো. আনোয়ার হোসেন। স্বামী মারা যাওয়ার পর তার অসহায়ত্বের সুযোগ নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে হয়রানি করে আসছিলেন তিনি। ওই নারীকে বাড়িতে ডেকে নিয়ে জোরপূর্বক অশ্লীল ভিডিও ধারণ করে সেই ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছেড়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে ব্ল্যাকমেইল করছেন বলেও অভিযোগ ছিল ইউপি সদস্য আনোয়ারের বিরুদ্ধে। ভুক্তভোগী ওই নারী এ ঘটনার প্রতিকার চেয়ে ২৬ আগস্ট লোহাগাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) বরাবর লিখিত অভিযোগ দিয়েছিলেন।