শনিবার,৩১শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

টেকনাফের দুই গ্রুপের গোলাগুলিতে নিহত ১

মুক্তখবর :
সেপ্টেম্বর ২২, ২০২০
news-image

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০ (নিজস্ব প্রতিনিধি): কক্সবাজারের টেকনাফে বিবদমান সশস্ত্র দুই গ্রুপের গোলাগুলিতে মো. তৈয়ুব (৩০) নামে এক যুবক নিহত হয়েছে। সোমবার বিকালে টেকনাফের রঙ্গিখালী স্কুল পাড়া এলাকায় গোলাগুলির এ ঘটনা ঘটে। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, স্থানীয় আবুল আলম গ্রুপের সদস্য দুদু মিয়ার ছেলে মো. তৈয়ুব স্কুল পাড়া এলাকায় একটি দোকানে অবস্থান করছিল। এ সময় প্রতিপক্ষ গিয়াস গ্রুপের কয়েকজনকে ওই এলাকা দিয়ে যেতে দেখে তৈয়ুব তার গ্রুপের লোকজনকে খবর দেয়। খবর পেয়ে গিয়াস গ্রুপের আরও লোকজন সশস্ত্র হয়ে তাদের মুখামুখি হয়। এক পর্যায়ে দুই গ্রুপের গোলাগুলিতে তৈয়ুব গুলিবিদ্ধ হয়ে ঘটনাস্থলেই মারা যায়। তার বুকে ও পেটে গুলি লাগে। পরে নিহত পক্ষের লোকজন প্রতিপক্ষের দোকান পাট ও বসতবাড়িতে চড়াও হয়। বেশ কয়েকটি বাড়িঘরে ভাঙচুর চালায়। এ সময় নুরুল ইসলামের ছেলে মোহাম্মদ হোছন প্রকাশ বদাইয়া (২৬) নামে একজনকে অপহরণ করে নিয়ে যায় বলে জানা গেছে। খবর পেয়ে টেকনাফ থানা পুলিশ ও র‌্যাবের একটি দল ঘটনাস্থলে পৌঁছালে অবস্থা শান্ত হলেও এলাকায় থমথমে পরিবেশ বিরাজ করছিল। টেকনাফ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ভারপ্রাপ্ত) এবিএমএস দোহা জানান, পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করেছে। নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ দায়ের করা হলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান তিনি। স্থানীয়রা জানান, রঙ্গিখালী এলাকায় প্রায় একযুগের বেশি সময় ধরে এলাকার আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের গোষ্ঠীগত দ্বন্দ্ব চলে আসছে। এই দ্বন্দ্বে স্থানীয় ইউপি মেম্বারসহ অর্ধ ডজনের বেশি মানুষের নিহতের ঘটনা ঘটেছে। স্ব স্ব গ্রুপকে শক্তিশালী করতে তারা মাদক বাণিজ্য নিয়ন্ত্রণ, অপহরণ ও মুক্তিপণ আদায়, ভাড়াটে সন্ত্রাসী এবং জবর দখল বাণিজ্য করে অবৈধ অস্ত্রের মওজুদ গড়ে তোলে। তাদের অবৈধ অস্ত্রের মহড়ায় জিম্মি হয়ে আছে এলাকার সাধারণ নিরীহ মানুষ।