মঙ্গলবার,২২শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

চার নিয়ম মেনে ডিম খান, ওজন কমবেই

মুক্তখবর :
নভেম্বর ২৮, ২০২০
news-image

ঢাকা, শনিবার, ২৮ নভেম্বর ২০২০ (স্বাস্থ্য ডেস্ক): ওজন কমানোর একটি সহজ উপায় প্রোটিন খাওয়া। কারণ প্রোটিন খেলে তা দীর্ঘ সময় পেটে থাকে, খিদে কম পায়। এক্ষেত্রে প্রোটিনের সেরা উৎস ডিম। অনেক মানুষ রোগা হওয়া বা ফিগার মেনটেন করতে চান। তাদের জন্য ডিম হতে পারে উপযোগী। তবে ওজন হ্রাসের ক্ষেত্রে ডিম ব্যবহার করার আগে কিছু ভুল সংশোধন করে নিতে হবে। অন্যথায় ফল বিপরীত হতে পারে। আসুন জেনে নেওয়া যাক সেই ভুলগুলো সম্পর্কে।

বেশি ডিম খাওয়া

ডিম খাওয়া শরীরের পক্ষে খুব ভালো, তবে সেটিও বুঝে খেতে হবে। আপনি যদি ডায়াবেটিস রোগী হন তবে সপ্তাহে ৩টির বেশি ডিম খাওয়া উচিত নয়। আপনি সম্পূর্ণ সুস্থ হলেও অত্যধিক ডিম খাবেন না।

অস্বাস্থ্যকর ফ্যাট দিয়ে ডিম ভাজলে বিপদ

ওজন কমাতে ডায়েটে রাখা ডিম মাখনের মতো জিনিস দিয়ে ভাজলে এটি আপনার ক্ষতি করতে পারে। কারণ ডিম উচ্চ প্রোটিনযুক্ত। ফলে প্রচুর পরিমাণে চর্বি আপনাকে হৃদরোগ, স্ট্রোক এবং ডায়াবেটিসের মতো রোগ দেখা দিতে পারে। স্বাস্থ্যের কথা মাথায় রেখে ডিম ভাজার সময় জলপাই, অ্যাভোকাডো বা ক্যানোলা তেলের মতো কম চর্বিযুক্ত তেল বেছে নিন।

ডিমের সাদা অংশ খাওয়া নিয়ে সতর্ক হন

অনেকে ডিমের হলুদ অংশটি সরিয়ে কেবল সাদা অংশ খান। ভুল ধারণা আছে, ডিমের হলুদ অংশ স্থূলত্ব বাড়ায়। ডিমের হলুদ অংশ ওজন কমাতে সহায়তা করে। পুরো ডিমের অর্ধেক প্রোটিন এই অংশে পাওয়া যায়।

শুধু সকালে ডিম নয়

অনেকেই নির্দিষ্ট সময়ে ডিম খেতে পছন্দ করেন। বিশেষ করে সকালে। তবে এটি ঠিক নয়। ডিম কেবল সকালে নয়, দুপুরের খাবার বা রাতের খাবারের সঙ্গেও খেতে পারেন।

সূত্র- এবিপি আনন্দ