সোমবার,১৯শে এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

কলাপাড়ায় কাউন্সিলর জাকি হোসেন জুকু খান’র বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারি

মুক্তখবর :
ফেব্রুয়ারি ২, ২০২১
news-image

গোফরান পলাশ, কলাপাড়া: পটুয়াখালীর কলাপাড়া পৌরসভার কাউন্সিলর জাকি হোসেন জুকু খান ও তার দু’সহযোগীর বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত। মঙ্গলবার (২ফেব্রুয়ারী) বিজ্ঞ কলাপাড়া সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট শোভন শাহরিয়ার’র আদালত এ গ্রেফতারী পরোয়ানা জারী করেন। আদালতের বেঞ্চ সহকারী মো: ফেরদৌস মিয়া এ আদেশের সত্যতা স্বীকার করেন। এর আগে ১৮মার্চ ২০২০ তারিখ বিজ্ঞ আদালতে শহরের রহমতপুর এলাকার মো: কামাল হোসেন বাদী হয়ে শহর যুবলীগ নেতা ও কলাপাড়া পৌরসভার ৩নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর জাকি হোসেন জুকু খান এবং তার সহযোগী মোশারেফ হোসেন ও ফয়সাল’র বিরুদ্ধে বিজ্ঞ আদালকে একটি নালিশী মামলা দায়ের করেন। বিজ্ঞ আদালত মামলায় বর্নিত অভিযোগের বিষয়ে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই), পটুয়াখালী কে অনুসন্ধান পূর্বক তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ প্রদান করেন। এরপর এম এ সোবাহান, পুলিশ পরিদর্শক, পিবিআই আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করেন। মামলার অভিযোগে বলা হয়, ১মার্চ ২০২০ দুপুরে বাদী (কামাল হোসেন) ব্যাংক থেকে টাকা উত্তোলনের জন্য বাসা থেকে বের হওয়ার পর জুকু খান ও তার সহযোগীরা তাকে চড়, থাপ্পর, কিল ঘুষি মারার পর তাকে টেনে হিঁচড়ে জোরপূর্বক মোটর সাইকেলে অপহরন করে জুকু’র মালিকানাধীন খান এন্টারপ্রাইজে নিয়ে যায়। সেখানে ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড কলাপাড়া শাখার হিসাব নং-৪৯০ এর অলিখিত ৫টি চেক, যাহার নম্বর ৮৫৪৪৯১৭, ৮৫৪৪৯১৯, ৮৫৪৪৯২০, ৮৫৪৪৯২৩ এবং ৮৫৪৪৯২৪এ জোরপূর্বক স্বাক্ষর নেয় এবং ৩টি অলিখিত রেফ কাগজে এবং ৩টি ১০০ টাকার নন জুডিসিয়াল ষ্ট্যাম্পে জোরপূর্বক স্বাক্ষর নিয়া বাদীকে খুন জখমের হুমকী প্রদর্শন করে। বাদী স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা করাইয়া ওই দিনই কলাপাড়া থানায় এ বিষয়ে ৪৫ নম্বর সাধারন ডায়েরী করেন। অত:পর ২মার্চ ব্যবস্থাপক ইসলামী ব্যাংক বরাবর লিখিত ভাবে বাদী উক্ত হিসাবের লেনদেন বন্ধ করার জন্য আবেদন করেন। পরবর্তীতে ১নং বিবাদী (জুকু খান) উক্ত চেকের মধ্য থেকে চেক নং-৮৫৪৪৯১৭এ এক কোটি পাঁচ লক্ষ টাকা এবং চেক নং-৮৫৪৪৯১৯ এ এক কোটি চৌত্রিশ লক্ষ টাকা লিখে ব্যাংকে উপস্থাপন করেন। যা ব্যাংক কর্তৃপক্ষ ২মার্চ পর্যাপ্ত অর্থ না থাকায় এবং লেনদেন বন্ধ থাকায় চেক দু’টি প্রত্যাখান করেন।