বৃহস্পতিবার,৬ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

নীলফামারীতে পৃথক ঘটনায় বাস-অটোরিকসা মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ২, আহত ১১

মুক্তখবর :
ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০২১
news-image

নীলফামারী প্রতিনিধিঃ নীলফামারীতে বাস-অটোরিকসা মুখোমুখি সংঘর্ষে মশিউর রহমান নামে একজন নিহত ও ১১ জন আহত ও মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় বাঁধন (২৬) নামে নিহত হওয়ার ঘটনা ঘটেছে। নিহত মশিউর সদরের ইটাখোলা ইউনিয়নের গাবেরতল গ্রামের গ্রামের আব্দুস সাত্তারের ছেলে ও নিহত বাঁধন সৈয়দপুরের রাবেয়া মোড় হাজি বাড়ির হামিদুল ইসলাম এর ছেলে। শনিবার (২৭ ফেব্র“য়ারী) সকালে নীলফামারী-সৈয়দপুর আঞ্চলিক মহাসড়কের উত্তরা ইপিজেড সংলগ্ন এলাকায় মশিউর রহমান নিহত ও ১১ জন আহত হয় এবং নিহত বাঁধন নিজ বাড়ি থেকে বের হওয়ার সময় ইটবাহী ট্রলির ধাক্কায় নিহত হওয়ার দূর্ঘটনা ঘটে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, সদরের কানিয়াল খাতা ও গাবের তল এলাকার দুইটি অটো রিকশা যাত্রী নিয়ে উত্তরা ইপিজেডে যাওয়ার পথে কামার পাড়া নামক স্থানে পৌঁছালে ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা জিসা পরিবহন ও অটোরিকশা মুখোমুখি সংঘর্ষ ঘটে। প্রত্যক্ষদর্শীরা আরো জানান, নীলফামারী-সৈয়দপুর সড়ক প্রশস্তকরনের কাজটি যদি দ্রুত সম্পন্ন হতো তাহলে আজকের এই দূর্ঘটনা হয়তো ঘটতো না। সিভিল সার্জন ডাঃ জাহাঙ্গীর কবীর একজনের মারা যাওয়ার বিষয়ে নিশ্চিত করে জানান, চিকিৎসাধীন অবস্থায় সদর হাসপাতালে ১জন মারা যায়, আশঙ্কাজনক অবস্থায় ৩ জনকে রংপুরে পাঠানো হয়েছে, ৮ জন চিকিৎসাধীন আছে। নীলফামারী সদর থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুর রউপ জানান, জিসা পরিবহন এর গাড়িটি তাদের নিজস্ব পাম্প পলাশ বাড়িতে রেখে গাড়ির ড্রাইভার ও হেলপার পালিয়ে যায়।