বৃহস্পতিবার,২৪শে জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

ভিয়েতনামে মিললো করোনার ‘হাইব্রিড’ ধরন

মুক্তখবর :
মে ৩০, ২০২১
news-image

ঢাকা, রবিবার, ৩০ মে ২০২১ (স্বাস্থ্য ডেস্ক): ভিয়েতনামে মহামারি করোনাভাইরাসের একটি নতুন রূপ পাওয়া গেছে। যার নাম দেয়া হয়েছে ‘হাইব্রিড’ কোভিড। কর্তৃপক্ষ বলছে, এটি ভারতীয় ও যুক্তরাজ্যের ভ্যারিয়েন্টের একটি সংমিশ্রণ এবং এটি বাতাসে দ্রুত ছড়িয়ে পড়তে পারে। ভিয়েতনামের স্বাস্থ্যমন্ত্রী গুয়েন থান লং সর্বশেষ শনাক্ত করোনার এ নতুন ধরনকে ‘খুব বেশি বিপজ্জনক’ বলে উল্লেখ করেছেন। ভিয়েতনামের স্বাস্থ্যমন্ত্রী গুয়েন থান লং একটি সরকারি বৈঠকে বলেন, কোভিডের নতুন একটি ধরন শনাক্ত হয়েছে, যা কোভিডের দুটি ধরনের সংমিশ্রণে তৈরি হয়েছে। এর একটি ভারতীয় ধরন এবং অন্যটি যুক্তরাজ্যের ধরন। স্বাস্থ্যমন্ত্রীর দেয়া বক্তব্য অনুযায়ী, নতুন করে সন্ধান পাওয়া এই ভ্যারিয়েন্টটি খুব দ্রুত এক স্থান থেকে অন্য স্থানে যায়। আগে শনাক্ত হওয়া করোনার সংস্করণগুলোর চেয়ে নতুন এই হাইব্রিড ধরন বেশি সংক্রামক, বিশেষ করে বাতাসে। ভারতে শনাক্ত করোনার নতুন ধরনটি ‘বি.১.৬১৭.২’ নামে পরিচিত। গত অক্টোবর মাসে এ ধরন শনাক্ত হয়। আর যুক্তরাজ্যে শনাক্ত করোনার নতুন ধরনটি ‘বি.১.১.৭’ নামে পরিচিত। যুক্তরাজ্যের চেয়ে করোনার ভারতীয় ধরনটি বেশি সংক্রামক বলে মত বিশেষজ্ঞদের। এর আগে বিশেষজ্ঞরা পরামর্শ দিয়েছেন যে, ফাইজার এবং অ্যাস্ট্রাজেনেকার দুই ডোজ করোনার ভারতীয় ধরনের ক্ষেত্রে খুবই কার্যকর। এছাড়াও এখনও পর্যন্ত এমন কোনও প্রমাণ নেই যে, ভাইরাসটির কোনোও পরিবর্তিত রূপ বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠ মানুষের জন্য আরও মারাত্মক অসুস্থতার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। গত কয়েক সপ্তাহে ভিয়েতনামে করোনা সংক্রমণ দ্রুত গতিতে বাড়ছেই। করোনা মহামারির শুরু থেকে এখন পর্যন্ত দেশটিতে ৬ হাজার ৭শ’র বেশি মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। এর মধ্যে অর্ধেকের বেশিই চলতি বছরের এপ্রিলের শেষের দিক থেকে শনাক্ত হয়েছে। দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে ৪৭ জন। সূত্র: বিবিসি